শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৯:৪৫

ঋণ খেলাপির কারণে বিএনপি ও জাপা প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল

মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি :

ঋণ খেলাপির কারণে বিএনপি ও জাপা প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল

বাগেরহাট-৪ (মোরেলগঞ্জ-শরণখোলা) আসনের উপ নির্বাচনে যাচাই-বাছাইয়ে পৌর কর পরিশোধ না করায় এবং ঋণ খেলাপি থাকায় বিএনপি মনোনীত প্রার্থী কাজী খায়রুজ্জামান শিপন ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী সাজন কুমার মিস্ত্রীর মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাড. আমিরুল আলম মিলনের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। 

রবিবার দুপুর ২টার দিকে জেলা নির্বাচন অফিসের মিলনায়তনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই শেষে রিটার্নিং অফিসার মো. ইউনুস আলী এ সিদ্ধান্ত জানান।

বিএনপির প্রার্থী কাজী শিপন প্রার্থীতা ফিরে পতে আপিল করবেন বলে জানিয়েছেন। তবে জাতীয় পার্টির প্রার্থী সাজন মিস্ত্রীর মন্তব্য পাওয়া যায়নি। আপিল বা উচ্চ আদালতে এ সিদ্ধান্তের কোন পরিবর্তন না হলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি নির্বাচিত হবেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. মিলন। 

খুলনা বিভাগীয় নির্বাচন কর্মকর্তা ও উপ-নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. ইউনুস আলী বলেন, ঋণ খেলাপি হওয়ায় জাতীয় পার্টির প্রার্থী সাজন কুমার মিস্ত্রীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া সময় মত পৌর কর পরিশোধে ব্যর্থতা ও  ঋণ খেলাপি থাকায় বিএনপি মনোনীত প্রার্থী কাজী খায়রুজ্জামান শিপনের মনোনয়নপত্রও বাতিল করা হয়েছে। 

তিনি আরও বলেন, বাতিল প্রার্থীরা ২৬ তারিখের মধ্যে নির্বাচন কমিশন বরাবর তাদের প্রার্থীতা ফিরে পেতে নির্দিষ্ট ফরমে আবেদন করতে পারবেন। ২৯ তারিখের মধ্যে এ আবেদনের নিষ্পত্তি করবেন নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন কমিশনেও যদি তাদের প্রার্থীতা বাতিল হয়। তাহলে তফসীল অনুযায়ী ১ মার্চ অ্যাড. আমিরুল আলম মিলনকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হবে। 

উল্লেখ্য, গত ১০ জানুয়ারি এ আসনের আসনের সংসদ সদস্য ডা. মোজাম্মেল হোসেন মৃত্যুবরণ করলে আসনটি শূন্য হয়। ৬ ফেব্রুয়ারি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। সে অনুযায়ী ২৯ ফেব্রুয়ারি প্রার্থিতা প্রত্যাহার ও ২১ মার্চ ভোট গ্রহণের কথা রয়েছে।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য