শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ এপ্রিল, ২০২০ ১৬:৪৪
আপডেট : ১০ এপ্রিল, ২০২০ ১৯:৪২

ছেলের নিথর দেহ আইসোলেশনে, ২৪ ঘণ্টা পর সৎকার, মা ছাড়া কেউ ছিল না পাশে!

শরীয়তপুর প্রতিনিধি

ছেলের নিথর দেহ আইসোলেশনে, ২৪ ঘণ্টা পর সৎকার, মা ছাড়া কেউ ছিল না পাশে!

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে মৃত্যুর দীর্ঘ ২৪ ঘণ্টা পর আইসোলেশনে রাখা সেই ব্যক্তির সৎকার সম্পন্ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকালে ধর্মীয় রীতিতে ও স্থানীয় প্রশাসনের উপস্থিতিতে শ্রী শ্রী সত্যনারায়ণ সেবা মন্দিরের শ্মশানে সম্পন্ন হয়েছে।

এর আগে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে প্রতিটি উপজেলায় হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সৎকারের জন্য একটি কমিটি গঠনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যারা করোনা সন্দেহে অথবা করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাবেন তাদের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করতে এই কমিটি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

এরপর ওই যুবকের মরদেহ অ্যাম্বুলেন্সে করে এলাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু মৃতদেহ নেওয়ার সময় মৃত ব্যক্তির মা ছাড়া অন্য স্বজনদের  দেখা যায়নি বলে নিশ্চিত করেছেন সদর হাসপাতালের তত্ত¡াবধায়ক ডাক্তার মুনির আহমেদ খান।

শরীয়তপুরের জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের জানান, ঘটনাটি জানার পর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম মেনে এবং হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী ওই মৃতের সৎকার সম্পন্ন হয়েছে করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত শুশান্ত কর্মকার করোনা আক্রান্ত ছিল না বলে নিশ্চত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল্লাহ আল মুরাদ। তার পরিবারের সদস্যদের হোম কোয়ারেন্টাইন আদেশ প্রতয়াহার করা হয়েছে। শুশান্তের নমুনা পরীক্ষায় করোনার সংক্রমণ পায়নি আইইডিসিআর। গত মঙ্গলবার দুপুরে জ্বর ও শ্বাস কষ্ট নিয়ে সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি।

বিডি প্রতিদিন/আল আমীন


আপনার মন্তব্য