শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ ডিসেম্বর, ২০২০ ১২:২৭
আপডেট : ২২ ডিসেম্বর, ২০২০ ১২:৪০
প্রিন্ট করুন printer

ফসলের মাঠে বেড়েছে বকের আনাগোণা

মহিউদ্দিন মোল্লা, কুমিল্লা

ফসলের মাঠে বেড়েছে বকের আনাগোণা

‘ঐ দেখা যায় তালগাছ, ঐ আমাদের গাঁ। ওই খানেতে বাস করে কানাবগীর ছা।’ সেই কানাবগী খাবারের খোঁজে নেমে আসে কৃষকের ফসলের জমিতে। বিশেষ করে শীতের শুরুতে বোরো চাষের প্রস্তুত করা জমিতে। এক পা তুলে অপেক্ষা করে। মাছ বা পোকা দেখলে লম্বা গলা বাড়িয়ে দেয়। এই চিত্রের দেখা মেলে কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার মনপাল গ্রামের ফসলের মাঠে। ফসলের মাঠে পড়া বকের ঝাঁক মানুষের উপস্থিতিতে ভোরের কুয়াশা ভেদ করে আকাশে উড়াল দেয়। গত বছর মাঠে কানি বক কম দেখা গেলেও এবার এর সংখ্যা বেড়েছে।

কানি বকের লম্বা ঠোঁট, হলুদ চোখ, ধূসর বাদামী পিঠ, মাথা, গলা এবং বুকে বাদামী সাদা ডোরা। বুকের নিচে, পেট থেকে লেজ বরাবর সাদা। লম্বা হলুদ লম্বা পা। এদের এক সময় দেখা যেত বিল, হাওর, পুকুর ও ডোবায়। পানির ধার ঘেঁষে সাদা বক বাস করে থাকে খাল, বিল, পুকুর, নদী, ঝিল, হাওর-বাওড় ও সমুদ্র উপকূলে। গাছের মগ ডালে বাসা বাঁধে। এদের প্রধান খাদ্য তালিকার মধ্যে রয়েছে মাছ ও পোকা-মাকড়। এছাড়া ফসলি জমিতে পোকা-মাকড় দমনে এদের ভূমিকা অপরিসীম। বক এখন শুধু প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষাই করে না এদের অবদান রয়েছে অর্থনীতিতেও। এই পাখিটি এখন প্রায় বিলুপ্তির পথে। শুধু গ্রামগঞ্জে ফসলের জমিতে ও শহরের লেকগুলোতে শীতের মৌসুমে দেখা মিলে এই ‘বক’।

প্রতি বছর শীতের প্রথম দিক থেকেই বোরো ধানের জমি প্রস্তুতি শুরু হয়। খাবারের খোঁজে নেমে আসে বকের সারি। এ যেন ফসলের কাদা মাটিতে সাদা বকের মহাসমাবেশ। মাছ ছাড়াও এসব পাখি শামুক, ঝিনুক, কাঁকড়া, মাজরা, ফড়িং, পামরি ও জলজ পোকামাকড় খেয়ে ফসলের উপকার করে।

এলাকার কৃষক আলী আকবর মোল্লা বলেন, এখন আর আগের মতো বক দেখা যায় না। আমরা যখন ছোট ছিলাম তখন ঝাঁকে ঝাঁকে সাদা বক ধানখেতের পোকামাকড় খেত। শিকারিদের কারণে বকের দেখা এখন পাওয়া যায় না।

ওয়াইল্ড ওয়াচ ইনফো কুমিল্লার পরিচালক জামিল খান বলেন, বর্তমানে যে হারে ফসলের জমিতে কীটনাশক ওষুধ দেওয়া হচ্ছে, তাতে আর কোনো ধরনের উপকারী পাখি ফসলের জমিতে বসে না। এতে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করা কঠিন হয়ে যাচ্ছে। ওদের খাদ্যাভাব থাকার পাশাপাশি রয়েছে নিরাপত্তার অভাব। এতে কমছে এদের চারণভূমি। মাছখেকো পাখি হওয়ায় দিন দিন বকের সংখ্যা কমে যাচ্ছে। ফাঁদ ও গুলি করে শিকার করছে এক শ্রেণীর অসাধু মানুষ। এখানেই শেষ নয়, বকের ডিম ও বাচ্চা বাসা থেকে নিয়ে বাজারে বিক্রি করা হচ্ছে। এছাড়াও জমিতে প্রচুর সার ও কীটনাশক প্রয়োগের ফলে হারিয়ে যাচ্ছে বকের মতো অনেক উপকারী পাখির সংখ্যা।

স্থানীয় উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা রিপন চন্দ্র দত্ত জানান, এই সাদা বক কৃষির অনেক উপকার করে। বোরো ধান বপণের পর জমিতে মাজরা পোকা, পামরি পোকা, কেঁচো, ফড়িং, তুরকুলার দেখা যায়। খেতে পানি দেওয়ার পর এসব পোকা ভাসতে থাকে আর বক তা খুঁটেখাটে খায়। এতে করে ফসলের উপকারের পাশাপাশি কৃষকরা লাভবান হয়।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মহিউদ্দিন শাহজাহান বলেন, বাঁশ ঝাড়ে বক বাসা বাঁধতো। এখন সেসব আশ্রয় কমে গেছে। খাল বিল ভরাট হওয়ায় মাছের প্রকৃতিক উৎস নষ্ট হচ্ছে। বকসহ বিভিন্ন পাখির খাবার কমছে। যেখানে পাখি আশ্রয় পাবে ও খাবারের সংকুলান হবে সেখানে পাখির সংখ্যা বাড়বে।

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:৪৫
প্রিন্ট করুন printer

প্রেমিকার বাড়ির সামনে গাছে মিলল প্রেমিকের ঝুলন্ত লাশ

মাদারীপুর প্রতিনিধি

প্রেমিকার বাড়ির সামনে গাছে মিলল প্রেমিকের ঝুলন্ত লাশ
নিতাই বারুরী

মাদারীপুরের রাজৈরে প্রেমিকার বাড়ির সামনের একটি গাছ থেকে বৃহস্পতিবার সকালে নিতাই বারুরী (২৮) নামে এক প্রেমিকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে রাজৈর থানা পুলিশ। নিহত নিতাই উপজেলার কদমবাড়ী ইউনিয়নের হিজলবাড়ি গ্রামের সুশীল বারুরীর ছেলে এবং কদমবাড়ী বাজারের মোবাইল ব্যবসায়ী।

পারিবারিক ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নিতাই বারুরীর সাথে ইকরাবাড়ি গ্রামের বাবুল গাইনের মেয়ে সঙ্গীতা গাইনের (২৫) প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তারা নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে একে অপরকে বিয়েও করেছে। কিন্তু বাধ সাধে সঙ্গীতার পরিবার। নিতাই বারুরীর সাথে তারা (সঙ্গীতার পরিবার) সঙ্গীতাকে পারিবারিকভাবে বিয়ে দিতে রাজী ছিল না। এই কারণে নিতাই এবং সঙ্গীতা মোবাইলে কথা বলত এবং পালিয়ে দেখা করত। বুধবার সকালে নিতাই মাদারীপুর যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর বাড়ি ফেরেনি। বৃহস্পতিবার সকালে সঙ্গীতাদের বাড়ির সামনের একটি জামগাছে নিতাইয়ের লাশ ঝুলতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেয়। পরে রাজৈর থানা পুলিশ গিয়ে গাছ থেকে নিতাইয়ের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

নিতাইয়ের প্রেমিকা সঙ্গীতা গাইন বলেন, তার সাথে আমার ৩ বছরের সম্পর্ক। তার সাথে আমার বিয়েও হয়েছে। বুধবার সারারাত আমরা মোবাইলে কথা বলেছি। এমনকি ভোর ৫টা পর্যন্ত আমাদের কথা হয়েছে। তারপর কি হল, বুঝতে পারলাম না।
নিতাইয়ের বাবা সুশীল বারুরী বলেন, আমার ছেলেকে ওরা ডেকে নিয়ে হত্যা করে লাশ গাছে ঝুলিয়ে রেখেছে। আমার ছেলে আত্মহত্যা করতে পারে না। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।
রাজৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ সাদি বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে প্রেম ঘটিত কারণে ছেলেটি আত্মহত্যা করেছে। তবে ময়না তদন্তের রিপোর্টের পর প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:৩৬
প্রিন্ট করুন printer

নাটোরে ২২ মাদকসেবী গ্রেফতার

নাটোর প্রতিনিধি

নাটোরে ২২ মাদকসেবী গ্রেফতার
নাটোরে ২২ মাদকসেবী গ্রেফতার।

নাটোরে মাদক সেবনের সময় ২২ মাদকসেবীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এসময় তাদের কাছে থেকে ৫ গ্রাম গাঁজা ও ২৫০ গ্রাম চোলাই দেশী মদসহ মাদক সেবনের উপকরণ জব্দ করা হয়। বুধবার রাতে সদর উপজেলার একডালা গ্রাম থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন-মো. মিঠু (৪৮), রওশান আলী (৬২), মো. মোতালেব (৫৫), শরিফুল ইসলাম (৪৫), মো. রিয়াজ (৩৫), মো. হৃদয় (২২), মো. বিপ্লব (২৫), মো. আনোয়ার হোসেন (৪৮), আবু সাইদ (৬২), সামছের জোয়ার্দ্দার (৪৬), মামুন বিশ্বাস (২৭), মো. বাবু প্রমানিক (৩২), মো. ইউসুফ (৫০), চান্দের মণ্ডল (৪০), রাব্বানী মোল্লা (২৪), শরিফুল ইসলাম (৩৮), মো. আজিজুল (২২), মো. ইমতাজ (৪৮), বিপ্লব কুমার দাস (৩৮), মো. শামীম (২০), নাহিদ (২৩) ও তোফাজ্জেল হোসেন (৫৬)।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সিপিসি-২ র‌্যাব-৫ নাটোর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার এএসপি মো. মাসুদ রানা জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার সন্ধ্যার পর তার নেতৃত্বে সদর উপজেলার একডালা গ্রামে অভিযান চালায় র‌্যাব সদস্যরা।

এসময় একত্রে মাদকসেবনের সময় ওই ২২ জনকে হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়। তারা বিভিন্ন এলাকা থেকে এসে একত্রে বসে মাদক সেবন করছিল। গ্রেফতার ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:২১
প্রিন্ট করুন printer

বাগেরহাটে গ্রাম আদালত সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে সভা

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটে গ্রাম আদালত সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে সভা

বাগেরহাটে গ্রাম আদালত সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহের অংশগ্রহণে সমন্বিত পরিকল্পনা প্রণয়ন সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বাগেরহাট জেলা প্রশাসনের আয়োজনে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের আওতায় বৃহস্পতিবার সকালে ডিসি অফিসের সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বাগেরহাট স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক দেব প্রসাদ পালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাগেরহাট জেলা প্রশাসক আ ন ম ফয়জুল হক।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক খোন্দকার মো. রিয়াজুল করিম, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খাদিজা আক্তার, বাগেরহাট প্রেস ক্লাবের সভাপতি নীহার রঞ্জন সাহা, বাগেরহাট ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক আহাদ উদ্দিন হায়দার উপস্থিত ছিলেন।

আরও উপস্থিত ছিলেন গ্রাম আদালত সংক্রিয়করণ প্রকল্পের ডিস্ট্রিক্ট ফ্যাসিলেটর মহিতোষ কুমার রায়সহ বাগেরহাট জেলার ৬টি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা, সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধি ও এনজিও প্রতিনিধিরা।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:১৮
প্রিন্ট করুন printer

নাটোরে আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে ভোট গ্রহণ

নাটোর প্রতিনিধি

নাটোরে আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে ভোট গ্রহণ

নাটোরে জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন-২০২১ এর ভোট গ্রহণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যালয়ে এই নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হয়। ভোট গ্রহণ চলেছে বিকেল ৩টা পর্যন্ত।

নির্বাচনে সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ (টগর-পারভেজ পরিষদ) ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ (রুহুল আমিন তালুকদার টগর-শরিফুল হক মুক্তা পরিষদ) এই দুইটি প্যানেলে ১১ জন করে মোট ২২ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সমিতির তালিকাভুক্ত ২৮৩ জন সদস্য এই নির্বাচনে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার অ্যাডভোকেট আসাদুল ইসলামসহ ৫ সদস্য বিশিষ্ট নির্বাচন কমিশন এই নির্বাচন পরিচালনা করছেন।

সকাল ৯টা থেকেই আইনজীবী সদস্যদের সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে দেখা গেছে। সুষ্ঠু ও সুশৃংখলভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করতে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও ডিবি সদস্যরা নিয়োজিত রয়েছেন।

বিডি প্রতিদিন/আল আমীন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:১৭
প্রিন্ট করুন printer

ভালুকায় ছাত্রদলের আনন্দ মিছিলে পুলিশি বাধার অভিযোগ

ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

ভালুকায় ছাত্রদলের আনন্দ মিছিলে পুলিশি বাধার অভিযোগ

 

দীর্ঘ ১৮ বছর পর ভালুকা উপজেলা, পৌর ও কলেজ শাখা ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করায় আনন্দ মিছিল বের করা হয়।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১ টার সময় উপজেলার ছাত্রদলের আহ্বায়ক লুৎফর রহমান খান সানি ও সদস্য সচিব রিয়াদ পাঠানের নেতৃত্বে শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে খন্ড খন্ড মিছিল বের করে। এ সময় পুলিশ ও ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগের নেকাকর্মীরা তাতে বাধা সৃষ্টি করে বলে নবগঠিত কমিটির নেতৃবৃন্দরা অভিযোগ করেন। 
উপজেলার ছাত্রদলের আহ্বায়ক লুৎফর রহমান খান সানি ও সদস্য সচিব রিয়াদ পাঠান, ভালুকা সরকারী কলেজ শাখার আহ্বায়ক এস এম আলী রাজ ও সদস্য সচিব মাহিদ আল হাসান মৃদুল, পৌর শাখার আহ্বায়ক মিয়াদুল হক খান ও সদস্য সচিব শাকিল খান এবং সোনার বাংলা কলেজ শাখার আহ্বায়ক সোহেল রানা ও সদস্য সচিব মনির হোসেনের নেতৃত্বে আলাদা আলাদা আনন্দ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর