শিরোনাম
প্রকাশ : ৭ মে, ২০২১ ০১:৫০
প্রিন্ট করুন printer

নোয়াখালীতে নববধূকে গলাটিপে হত্যা, স্বামী আটক

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীতে নববধূকে গলাটিপে হত্যা, স্বামী আটক
Google News

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে যৌতুকের টাকা এনে না দেওয়ায় এক নববধূকে গলাটিপে হত্যা করেছে ঘাতক স্বামী। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্ত স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ। 

নিহত ফাতেমা আক্তার মুন্নি (১৯) নোয়াখালী পৌরসভার ১নম্বর ওয়ার্ডের মধুসুদনপুর গ্রামের ফরিদ হাজী বাড়ির আহছান উল্যার মেয়ে। 

বৃহস্পতিবার (৬ মে) এ ঘটনায় নিহতের মা খায়েরুন নেছা বাদী হয়ে অভিযুক্ত স্বামীকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। এর আগে বুধবার (৫ মে) গভীর রাতের যেকোনো এক সময়ে উপজেলার ছয়ানী ইউনিয়নের উত্তর নয়নপুর গ্রামের ওদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

আটককৃত স্বামী মো. জিহাদ (২২) উপজেলার ৫নং ছয়ানী ইউনিয়নের উত্তর নয়নপুর গ্রামের ওদার বাড়ির মো. হারুনের ছেলে।

ভুক্তভোগী পরিবার ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ৩ মাস ২৭ দিন আগে মুন্নি ও জিহাদ প্রেম করে নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। বিবাহের পর থেকে জিহাদ তাকে একটি ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা কিনে দেওয়ার জন্য শ্বশুরের পরিবারের কাছে দাবি করে। তবে মেয়ের বাবা গরীব হওয়ায় জামাইয়ের দাবি পূরণ করতে পারেননি।

এর মধ্যে গত বুধবার (৫ মে) রাতে জিহাদ তার স্ত্রীকে অটোরিকশা কিনে দেওয়ার জন্য টাকার এনে দেওয়ার কথা বললে এই নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। টাকা এনে দিতে পারবে না বললে গভীর রাতে বসত ঘরের রুমের খাটের ওপর তার স্বামী তাকে গলা টিপে হত্যা করে।

নিহতের শাশুড়ি জোসনা বেগম সেহরি খেতে তাকে ডাকতে গেলে খাটের ওপর পুত্রবধূর মরদেহ দেখতে পায়। বৃহস্পতিবার পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে অভিযুক্ত আসামিকে আটক করে। 
বেগমগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ কামরুজ্জামান সিকাদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। 

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর

এই বিভাগের আরও খবর