২২ অক্টোবর, ২০২১ ১৪:৩৮

চুরি হয়ে গেল শিবচরের শতবর্ষী প্রাচীন বিশাল আকৃতির ডেগ!

মাদারীপুর প্রতিনিধি

চুরি হয়ে গেল শিবচরের শতবর্ষী প্রাচীন বিশাল আকৃতির ডেগ!

মাদারীপুর জেলার শিবচরের দত্তপাড়া ইউনিয়নের মগড়া পুকুরপাড় গ্রামের খবির উদ্দিন মৌলভীর বাড়ির প্রাচীন নিদর্শন শতবর্ষ আগের একটি পিতলের ডেগ চুরি হয়ে গেছে। 

বৃহস্পতিবার দিবাগত মধ্যরাতে বিশাল আকৃতির ডেগটি চুরি করে নিয়ে যায় চোর চক্র। স্থানীয় এক বাড়ির সিসি ক্যামেরার অস্পষ্ট ফুটেজে দেখা গেছে, ভোর রাত ৩ টার দিকে একটি ব্যাটারি চালিত ভ্যানে করে কাপড়ে ঢাকা ডেগ সদৃশ্য কিছু একটা নিয়ে যাচ্ছে ৩/৪ জন লোক। ধারণা করা হচ্ছে ভ্যানে করেই ডেগটি চুরি করে নিয়ে যায় চোর চক্র।

শিবচরের দত্তপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র সূত্র জানিয়েছে, সকালে খবর পেয়ে দত্তপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র থেকে পুলিশের টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।  

মৌলভী বাড়ির পীর মরহুম খবির উদ্দিন মৌলভীর নাতি হাবিব মুন্সী বলেন, 'ফজরের নামাজের সময় মসজিদে এসে দেখি ডেগটি নাই। ডেগ যেখানে রাখা ছিল ওই ঘরের একটি খুটি ভেঙে ডেগটি বের করেছে। এই ডেগটি শত বছর আগের। মসজিদের পাশেই রাখা ছিল। অনেক দূর থেকে অসংখ্য মানুষ ডেগটি দেখতে আসতো।'

তিনি জানান, মরহুম মাওলানা খবির উদ্দিন আহমেদ আল কাদেরী প্রায় ১ শত বছর পূর্বে বাগদাদ থেকে এই ডেগটি এনেছিলেন। তার মাজারের পাশে একটি খোলা ঘরে এই ডেগটি রাখা ছিল দর্শনার্থীদের জন্য। বিশাল এই ডেগটি দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে অনেক লোকজন আসতো। ডেগটির উপর খোদাই করে লেখা ছিল- “ডেগ ওরুচে পিরানে পীর সৈয়দ আব্দুল কাদের জিলানী, গোলাম ফকির, শ্রী মৌলবি খবির উদ্দিন কাদেরী, সাং- উৎরাইল, সন- ১৩১৯”। বাকি লেখা অস্পষ্ট ছিল।  

ডেগটির উচ্চতা ৩ ফুট ৬ ইঞ্চি। এর চারপাশের আয়তন ১৪৮ ইঞ্চি। ডেগ এর উপর দিকে কাঁধ বরাবর চারকোণে চারটি রিং রয়েছে। যার ওজন প্রায় ৪ কেজি করে। ডেগটি স্থানান্তরের জন্য পূর্ণ বয়স্ক ১৪ থেকে ১৫জন লোক লাগতো এবং কমপক্ষে ৯/১০ মন খিচুড়ি এই ডেগের মধ্যে রাখা যেতো বলে স্থানীয়রা জানান।  

দত্তপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি জিয়াউল মাতুব্বর বলেন, 'ডেগটি প্রাচীন ইতিহাস বহন করে। দূর-দূরান্ত থেকে দর্শনার্থীরা ডেগটি দেখতে আসতো। '

শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মো. মিরাজ হোসেন বলেন, 'খবর পেয়ে পুলিশের একাধিক টিম ঘটনাস্থলে যায়। আমি নিজেও ঘটনাস্থলে আসি। এ ব্যাপারে মামলা হবে। তাছাড়া সকাল থেকেই পুলিশ ডেগ উদ্ধারে কাজ করছে।'

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর