শিরোনাম
১৩ জানুয়ারি, ২০২৪ ১৭:৪০

কুড়িগ্রামে শীতে কাবু জনজীবন

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:

কুড়িগ্রামে শীতে কাবু জনজীবন

কুড়িগ্রামে ঘন কুয়াশা কম থাকলেও হাড় কাঁপানো কনকনে ঠান্ডায় শ্রমজীবী ও নিম্ন আয়ের মানুষজন পড়েছে বিপাকে। সাথে রয়েছে উত্তরীয় হিমেল হাওয়া। গত চারদিন ধরে দিনভর সূর্যের মুখ দেখা যায় না। ফলে ঠান্ডায় কাবু হয়ে পড়েছে এ জেলার মানুষজন। 

শনিবার সকালে জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা গতদিনের চেয়ে আরো ১ডিগ্রি কমেছে। এদিকে, রাত ও দিনের তাপমাত্রা প্রায় কাছাকাছি হওয়ায় জেলার শীতের ঠান্ডার তীব্রতা বেড়ে গেছে।ঠান্ডা বেশি অনুভূত হওয়ায় নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া মানুষজন ঘর থেকে বের হতে না পেরে পড়েছেন বিপাকে। অনেকেই খড়কুটো জ্বালিয়ে ঠান্ডার হাত থেকে রেহাই পেতে আগুনের পাশে উত্তাপ নিচ্ছেন।

জেলার আড়াইশ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে গত ২৪ ঘন্টায় ৩০-৩৫জন শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে রোগী ভর্তি হয়েছে বলে হাসপাতাল সুত্রে জানা যায়। তবে এ হার আরো বাড়তে পারে।জেলার রাজারহাট কৃষি আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুবল চন্দ্র জানান, এ জনপদে তাপমাত্রা আরও কয়েকদিন কমতে থাকবে। তবে এ মাসের শেষে একটি শৈত্য প্রবাহ এ জেলার ওপর দিয়ে বয়ে যেতে পারে বলেও জানান তিনি।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাঈদুল আরীফ জানান, প্রচন্ড শীতের কথা বিবেচনা করে শীতার্ত মানুষের জন্য সরকারি ও বেসরকারিভাবে শীতবস্ত্র বিতরণ অব্যাহত রয়েছে। এ পর্যন্ত ৫২হাজার কম্বল শীতার্ত মানুষের জন্য ৯ উপজেলায় বন্টন করা হয়েছে। এছাড়াও শিশু ও দরিদ্র কর্মজীবীদের জন্য গরম কাপড়েরও ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/এএম

 

 

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর