শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২০:৫১
আপডেট : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২০:৫২
প্রিন্ট করুন printer

হাতে ছবি নেই, তা সত্ত্বেও কিভাবে চলে কারিশমার বিলাসবহুল জীবনযাত্রা?

অনলাইন ডেস্ক

হাতে ছবি নেই, তা সত্ত্বেও কিভাবে চলে কারিশমার বিলাসবহুল জীবনযাত্রা?
কারিশমা কাপুর

কাপুর পরিবারে বউ এবং মেয়েদের অভিনয় জগতে আসার রীতি ছিলো না। এমনকি নিষেধাজ্ঞাও ছিল, তা সত্ত্বেও মা ববিতার হাত ধরে অভিনয় জগতে পা রাখেন কারিশমা। অভিনয় দিয়ে নিজের প্রমাণ দিয়ে সফল হন পেশাগত জীবনে। 

কারিশমা সাফল্যের একেবারে শীর্ষে থাকার সময়ই ব্যবসায়ী সঞ্জয় কাপুরকে ২০০৩ সালে বিয়ে করেন। তারপর সংসার নিয়ে এতটাই ব্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন যে, অভিনয় থেকে বিরতি নিয়ে নেন। পরে নতুন করে অভিনয় জগতে ফিরতে চাইলেও দর্শক তাকে গ্রহণ করেনি।

অনেক দিন হলো তার হাতে কোনো ছবিই নেই। অন্য দিকে ২০১৬ সালে স্বামী সঞ্জয় কাপুরের সঙ্গেও তার বিচ্ছেদ হয়। তারপর থেকে ২ সন্তানকে একাই বড় করে তুলছেন কারিশমা।

তারকাদের মানানসই পোশাক, খাবার, ছেলে মেয়েদের স্কুল এবং টিউশন খরচ-- কোনও কিছুর সঙ্গেই আপস করতে হয়নি তাকে। আগের মতোই বিলাসিতাকে সঙ্গী করে জীবন কাটাচ্ছেন তিনি।

বিলাসবহুল জীবন কাটানোর জন্য বড় অঙ্কের উপার্জনের প্রয়োজন। অথচ খরচ বহন করার জন্য কোনও ছবিই তার হাতে নেই। তাহলে কীভাবে এই বিশাল খরচের ভার কারিশমা বহন করছেন?

জানা গেছে, মা ববিতা এবং বাবা রণধীর কাপুরের যথেষ্ট সম্পত্তি রয়েছে। যা কারিশমা এবং কারিনা, ২ বোনের মধ্যেই ভাগ হবে পরবর্তীকালে। তার উপর ২০১৬ সালে স্বামী সঞ্জয়ের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর খোরপোষের মামলা করেছিলেন কারিশমা। ২ ছেলেমেয়ের জন্য সঞ্জয়কে আলাদা করে ১৪ কোটি রুপি দিতে হয়েছিল।

এছাড়া কারিশমার থাকা-খাওয়ার খরচ হিসাবে প্রতি মাসে ১০ লাখ রুপি করে সঞ্জয়কে দিতে হয়। নিজের খরচ এবং ছেলেমেয়ের স্কুল-টিউশনের খরচ এই টাকা থেকে অনায়াসেই উঠে আসে কারিশমার। ফলে এ নিয়ে ভাবতে হয় না তাকে।

এদিকে, কারিশমা অভিনয় জগতে সক্রিয় না থাকলেও বোন কারিনার থেকেও তার ব্যস্ততা অনেক বেশি। একটি শো-য়ে কারিনা নিজেই এ কথা জানিয়েছিলেন। কারিশমা আসলে বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে যুক্ত। সেই সমস্ত সংস্থার বিজ্ঞাপনী প্রচারের মুখ কারিশমাই। সেখান থেকেও বড় অঙ্কের অর্থ প্রতি মাসে অ্যাকাউন্টে চলে আসে তার।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর