শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ জানুয়ারি, ২০১৯ ২২:২৫

আমি কখনো বলিনি সংলাপ হবে : কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

আমি কখনো বলিনি সংলাপ হবে : কাদের

নির্বাচন নিয়ে সংলাপ হাস্যকর মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘সংলাপ শব্দটিই আমি উচ্চারণ করিনি। এখানে সংলাপের বিষয় এলো কোথা থেকে! আর নির্বাচন নিয়ে কেন সংলাপ করতে যাব? যেখানে সারা গণতান্ত্রিক বিশ্বের নেতারা নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার জন্য  অভিনন্দন জানাচ্ছেন, সেখানে সংলাপ হবে কেন?’ তিনি বলেন, ‘আমন্ত্রণ জানানো মানে তো সংলাপ নয়। সংলাপ নিয়ে ধূম্রজালেরকথা বলা হচ্ছে। সংলাপ নিয়ে তো আমরা কিছু বলিনি। এখন কেউ যদি মনগড়া সংবাদ পরিবেশন করেন, কী করার আছে?’ তিনি বলেন, তার সব বক্তব্যের অডিও, ভিডিও রেকর্ড রয়েছে। তিনি কখনো বলেননি সংলাপ হবে। আওয়ামী লীগের আসন্ন জনসভা উপলক্ষে গতকাল ঢাকা মহানগরী উত্তর আওয়ামী লীগের প্রস্তুতি সভায় তিনি এসব কথা বলেন। দলটির ১৯ জানুয়ারির জনসভাকে কেন্দ্র করে ধানমন্ডির হোয়াইট হল কনভেনশন সেন্টারে প্রস্তুতি সভার আয়োজন করা হয়। ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘উপজেলা নির্বাচন জোটগতভাবে হবে না। আমরা দলীয়ভাবে উপজেলা নির্বাচন করব।’ তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ক্যারিশমাটিক নেতৃত্বের কারণে মহাবিজয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ। নৌকার টিকিটে আমাদের প্রার্থীরা উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেবেন। শরিক দলের প্রার্থীকে নৌকা দেওয়া হবে না। আমাদের যারা শরিক আছেন তাদের প্রতি আহ্বান থাকবেÑ তারা যেন প্রত্যেকে যার যার মতো করে উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেন।’ ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, আগামী মার্চ থেকে ধাপে ধাপে উপজেলা নির্বাচন হবে। ফেব্রুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহে এ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা শুরু। তিনি বলেন, ‘আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনের আগে ঐক্যফ্রন্ট, বিএনপি, যুক্তফ্রন্ট, বাম দল, জাতীয় পার্টি, ইসলামী দলসহ ৭৫টি দলের সঙ্গে বিভিন্ন পর্যায়ে সংলাপ করেছেন। সেই দলগুলোকে বা দলের নেতাদের তিনি গণভবনে আমন্ত্রণ জানাতে চান শুভেচ্ছা বিনিময়ের জন্য।’ সভায় বক্তৃতা করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, ঢাকা মহানগরী উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান, আসলামুল হক এমপি, ডিএনসিসির ভারপ্রাপ্ত মেয়র জামাল মোস্তফা প্রমুখ। নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মহাবিজয়ে মহাদাপট দেখাচ্ছে এটা যেন না হয়। এবার বড় বিজয়ে বড় ধৈর্য ধরতে হবে। আমাদের সহিষ্ণুতা প্রদর্শন করতে হবে। বড় বিজয়ে বড় দায়িত্ব হিসেবে জনগণের প্রতি, দেশের প্রতি এ দায়িত্ব আমাদের পালন করতেই হবে।’


আপনার মন্তব্য