শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:২২

নৈতিক বিজয় দেখছেন মমতা

কলকাতা প্রতিনিধি

নৈতিক বিজয় দেখছেন মমতা

কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বাড়িতে ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরোর (সিবিআই) অভিযান-চেষ্টার বিরোধিতা করে সুপ্রিম কোর্ট বলেছে, ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে আপাতত গ্রেফতার করা যাবে না। রাজীবকে গ্রেফতার-চেষ্টার প্রতিবাদে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি গত রবিবার থেকে ‘অবস্থান’ পালন করছিলেন। তাঁর অবস্থানের তৃতীয় দিনে গতকাল ওই রায়ের খবর পেয়ে মমতা দৃশ্যত খুব খুশি। মমতার অবস্থান ধর্মঘটের ঘটনায় ভারতজুড়ে রাজনৈতিক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। এরই মধ্যে গতকাল সুপ্রিম কোর্টে শুনানি ছিল সিবিআই-রাজীব কুমার মামলার। শীর্ষ আদালতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈর নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ জানায়, আপাতত রাজীব কুমারকে গ্রেফতার করা যাবে না। তবে তদন্তের জন্য নিরপেক্ষ কোনো জায়গায় তাকে সিবিআইর সামনে হাজিরা দিতে হবে। সে ক্ষেত্রে ২০ ফেব্রুয়ারি মেঘালয়ের শিলংয়ে সশরীরে শিলং সিবিআইর সামনে তাকে হাজিরা দিতে হবে। ২৮ ফেব্রুয়ারি মামলার পরবর্তী শুনানি। সেই সঙ্গেই রাজ্যের মুখ্যসচিব মলয় দে, পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র ও রাজীব কুমারে বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার নোটিস পাঠানো হয়েছে শীর্ষ আদালতের তরফে। ১৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে তাদের ওই নোটিসের জবাব দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তাদের জবাব খতিয়ে দেখে পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে শীর্ষ আদালত। গত রবিবার বিকালে রাজীব কুমারের সরকারি বাসায় কাজে বাধাদানের পরিপ্রেক্ষিতেই ওই মামলা করে সিবিআই। ধর্মতলায় মমতার অবস্থানমঞ্চে মামলার রায়ের খবর আসতেই আদালতের রায়কে স্বাগত জানিয়ে মমতা বলেন, ‘সুপ্রিম কোর্টের এ রায় এ রাজ্যের মানুষের, দেশের মানুষের নৈতিক জয়। বিচারব্যবস্থার প্রতি আমাদের সম্পূর্ণ আস্থা রয়েছে। আদালতের এ রায় রাজ্য পুলিশের মনোবল বাড়িয়ে দেবে।’ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘রাজীব কুমার বলেননি যে তিনি তদন্তের জন্য উপস্থিত হতে পারবেন না। অসহযোগিতার কথাও বলা হয়নি। সিবিআই তাকে গ্রেফতার করতে এসেছিল। আদালত বলেছে গ্রেফতার করা যাবে না।’ মমতার দাবি- ‘এ লড়াই শুধু রাজীব কুমারের একার লড়াই নয়, এ লড়াই কোটি কোটি মানুষের।’ সেই সঙ্গে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে ফের একবার ফোঁস করে ওঠেন মমতা। এদিন ফের কেন্দ্রের বিরুদ্ধে প্রতিহিংসার রাজনীতি করার অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদির সরকার আর বেশিদিন থাকবে না। শীর্ষ আদালত গণতন্ত্রের পক্ষে কথা বলেছে। আদালত বিজেপি সরকারের ষড়যন্ত্র ভেস্তে দিয়েছে।’


আপনার মন্তব্য