Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৩ জুন, ২০১৯ ০২:১৬

গাছে বেঁধে ভয়ঙ্কর নির্যাতন, গৃহবধূর গর্ভপাত

শেরপুর প্রতিনিধি

গাছে বেঁধে ভয়ঙ্কর নির্যাতন, গৃহবধূর গর্ভপাত

শেরপুরের নকলায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের ফলে তার গর্ভপাত ঘটেছে। এই নির্যাতনের একটি ভিডিওচিত্র গত মঙ্গলবার স্থানীয়দের মুঠোফোনে ছড়িয়ে পড়েছে। পরে পুলিশ এ ঘটনায় করা মামলায় নাসিমা আক্তার নামে এক নারীকে গ্রেফতার করেছে। জানা গেছে, নাসিমা উপজেলার ভূরদী গ্রামের আবদুল  মোতালেবের মেয়ে। গতকাল দুপুরে নকলা থানা পুলিশ তাকে ভূরদী গ্রাম থেকে গ্রেফতার করে। ‘নির্যাতনের শিকার’ গৃহবধূর নাম ডলি খানম (২২)। তিনি উপজেলা সদরের কায়দা এলাকার শফিউল্লাহর স্ত্রী ও স্থানীয় চন্দ্রকোনা কলেজের স্নাতক শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী। পুলিশ ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, গৃহবধূ নির্যাতনের ওই ঘটনাটি ঘটেছে ১০ মে। পরে এ ঘটনায় দুটি মামলা হয়। প্রথম মামলাটি হয় ৩ জুন শেরপুরের সি আর আমলি আদালতে। এ মামলায় ডলির স্বামী শফিউল্লাহ, তার তিন ভাই ও ভাবীসহ পাঁচজনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাতনামা আরও ৫ থেকে ৭ জনকে আসামি করেন।

 বিচারক শরীফুল ইসলাম খান মামলাটি তদন্ত করে ১০ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিলের জন্য জামালপুরের পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দেন। দ্বিতীয় মামলাটি করেন ডলি নিজে। গতকাল সকালে নয়জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৩ থেকে ৪ জনকে আসামি করে নকলা থানায় মামলা করেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, গাছের সঙ্গে বাঁধার পর ডলির শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারধর করা হয়। এতে ডলি গুরুতর আহত হন এবং ঘটনাস্থলেই তার গর্ভপাত হয়।


আপনার মন্তব্য