শনিবার, ৯ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ টা

মন্ত্রীদের কথা যেন মাস্তানের হুংকার

নিজস্ব প্রতিবেদক

মন্ত্রীদের কথা যেন মাস্তানের হুংকার

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সরকার দেশের অর্থনীতিকে ফোকলা করে ফেলেছে। দুর্নীতি লুটপাটে দেশ ও জনগণকে পথে বসিয়ে দিয়েছে। এই করোনা মহামারীতে মানুষ নিঃস্ব হয়ে গেছে। গতকাল রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক  সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। দীর্ঘ সাড়ে ছয় মাস অসুস্থ থাকার পর গত বুধবার দফতরের দায়িত্ব নেওয়ার পর এই প্রথম সংবাদ সম্মেলনে আসলেন রিজভী। বিএনপির এই নেতা বলেন, এর মধ্যে ই-কমার্সের নামে ডজন ডজন প্রতিষ্ঠান জনগণের পকেট থেকে কোটি কোটি টাকা লোপাট করল। খোদ সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় ‘নগদ’ নামের আরেকটি প্রতিষ্ঠানের নগদ কেলেঙ্কারির খবর বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে। এই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জড়িতদের কেউ কেউ ইতিমধ্যে দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন। সরকারকে বলব, বাঁচতে চাইলে ক্ষমতা ছেড়ে দিয়ে জনগণের কাছে ক্ষমা চান।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সম্পর্কে তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানের বক্তব্য ‘শিষ্টাচারবহির্ভূত’ বলে মন্তব্য করেন রিজভী আহমেদ। তিনি বলেন, ‘তথ্য প্রতিমন্ত্রীর এ ধরনের বক্তব্য মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষের পক্ষেই সম্ভব। যারা এই বক্তব্য শুনেছেন, তারা হতবাক হয়ে গেছেন। এটা কী কোনো সভ্য দেশের মন্ত্রীর মুখের ভাষা হতে পারে? মনে হয়েছে, গলির সন্ত্রাসী মাস্তানের হুংকার। বস্তির অশিক্ষিত বোহেমিয়ান গালিবাজদের খিস্তি।’

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে হলে অবশ্যই নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। আইন করে নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া আগামীতে কোনো জাতীয় নির্বাচন হবে না, জনগণ হতে দেবে না। জনগণ রাজপথে নেমে এ সরকারকে হটিয়ে মানুষের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা করবেই।

সর্বশেষ খবর