শিরোনাম
বৃহস্পতিবার, ১৬ জুন, ২০২২ ০০:০০ টা

রওশন এরশাদ ১০ মাস ধরে চিকিৎসাধীন

শফিকুল ইসলাম সোহাগ

রওশন এরশাদ ১০ মাস ধরে চিকিৎসাধীন

১০ মাস ধরে চিকিৎসাধীন জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ। থাইল্যান্ডের ব্যাংককে বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রওশন এরশাদ বর্তমানে অনেকটাই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। পরিবার-পরিজন, দলের নেতা-কর্মী ও শুভানুধ্যায়ীদের সঙ্গে স্বাভাবিক কথাবার্তা বলছেন। স্বাভাবিক খাবার গ্রহণও করছেন। বাজেট অধিবেশনে যোগ দেওয়ার জন্য চলতি মাসেই তাঁর দেশে ফেরার সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। কিছুদিন আগে রওশন এরশাদকে দেখতে ব্যাংককে যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান কাজী মামুনুর রশীদ। তিনি বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানান, ‘আমি ম্যাডামকে দেখতে ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে গিয়েছিলাম। আল্লাহর রহমতে তিনি পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন। স্বাভাবিক খাবার খাচ্ছেন। আমার ও পরিবারের খোঁজখবর নিয়েছেন। দলের নেতা-কর্মী, দেশের পরিস্থিতি জানতে চেয়েছেন। আমি যতটুকু সম্ভব অবহিত করেছি। আমার সঙ্গে তাঁর একেবারেই স্বাভাবিক কথাবার্তা হয়েছে। তিনি দ্রুত দেশে ফিরে আসতে চান। আশা করা হচ্ছে তিনি সংসদের চলতি অধিবেশনেই যোগ দেবেন’। জানা যায়, ফুসফুসের সমস্যাসহ বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় ভুগছেন ৭৮ বছর বয়সী রাজনীতিবিদ সাবেক ফার্স্টলেডি রওশন এরশাদ। গত বছরের ১৪ আগস্ট তাঁর ফুসফুসে জটিলতায় অক্সিজেন লেভেল কমতে শুরু করলে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তখন কিছুদিন তাঁকে আইসিইউতে রাখা হয়। অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে কেবিনে নেওয়া হয়। হাসপাতালে থাকাকালেই গত ২০ অক্টোবর আবার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে দ্বিতীয় দফায় আইসিইউতে নেওয়া হয়। সেখানে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে ৫ নভেম্বর সন্ধ্যায় তাঁকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে ধীরে ধীরে তিনি সুস্থ হয়ে উঠছেন। ছেলে রাহগির আল মাহি সাদ এরশাদ ও পুত্রবধূসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা তাঁর সঙ্গে রয়েছেন। সাদ এরশাদ থাইল্যান্ড থেকে মোবাইল ফোনে বলেন, আম্মু আগের চেয়ে অনেকটা সুস্থ। তিনি এখন নিয়মিত নিজের হাতে খাচ্ছেন। আমরা আশা করছি, এ মাসের মধ্যেই দেশে ফিরবেন এবং চলতি বাজেট অধিবেশনে যোগদান করবেন। দেশবাসীর দোয়া কামনা করেছেন তিনি। অন্য এক প্রশ্নের জবাবে সাদ এরশাদ বলেন, আম্মু দেশে ফিরেই রাজনীতিতে সক্রিয় হবেন এবং জাতীয় পার্টির সর্বস্তরের নেতা-কর্মীদের নিয়ে দলকে সংগঠিত করে আগামী জাতীয় নির্বাচনের জন্য সর্বাত্মক প্রস্তুতি নেবেন।

সর্বশেষ খবর