শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ২১:৩৮

ত্বকচর্চায় মৌসুমি আম

উম্মে হানি

ত্বকচর্চায় মৌসুমি আম
♦ ছবি : ইন্টারনেট

অতিরিক্ত গরম। এ সময় সানবার্ন, সানট্যান, ডিহাইড্রেশন এবং এলার্জি; ত্বকের প্রতিদিনকার সমস্যা। তবে এসব সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পারে মৌসুমি ফল আম।

ফলের রাজা আম। এতে আছে ভিটামিন ‘সি’, ভিটামিন ‘বি’, ভিটামিন ‘এ’ এবং মিনারেলস। আর পাকা আম তো অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের ভালো উৎস। শুধু তাই নয়, এতে আছে বেটা-ক্যারোটিন। যা ত্বককে পুনর্জীবিত, ত্বকের দাগ রোধ এবং ডার্ক সার্কেল দূর করতে সাহায্য করে। আমে থাকা কোলাজেন ত্বকের কোমলতা বাড়ায়। পাশাপাশি ত্বকে বলিরেখা এবং কালো দাগ দূর করতে কার্যকরী। এ ছাড়াও এটি অ্যান্টি-এজিং রোধে বেশ কার্যকর। অসময়ে স্কিন এজিং এবং পিগমেন্টেশনের চিকিৎসায় আম ভালো সমাধান হতে পারে। তবে কাঁচা আম দিয়ে নয়, কেবল পাকা আম দিয়েই ত্বকের যত্ন করতে হবে।

♦ ২ চা চামচ আমের পাল্পের সঙ্গে চা চামচ লেবুর রস, ১ চা চামচ অলিভ অয়েল, ২ চা চামচ ওটসের গুঁড়া ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। কনুই ও হাঁটুতে ২ মিনিট ম্যাসাজ করে ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখবে এই ফেসপ্যাকটি।

♦ কয়েকটি আমের টুকরোর সঙ্গে আধা কাপ দুধ, ২ টেবিল চামচ মধু এবং ১ টেবিল চামচ ওটমিল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। প্যাকটি ব্যবহারের আগে ভালোভাবে মুখ ধুয়ে নিন। প্যাকটি মুখে ব্যবহার করুন। ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। সংবেদনশীল ত্বকের জন্য প্যাকটি দারুণ কার্যকর।

♦ ১ টেবিল চামচ পাকা আমের পাল্পের সঙ্গে ১ চা চামচ মুলতানি মাটি, ২ চা চামচ টকদই ভালো করে মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করে নিন। মুখে ও গলায় লাগিয়ে নিন। ২০ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখবে এই ফেসপ্যাকটি।

♦ কয়েকটি পাকা আমের টুকরো, এক কাপ দুধ এবং ১ টেবিল চামচ আমন্ড পাউডার দিয়ে হোমমেড ফেসওয়াশ তৈরি করুন। এরপর ত্বকে লাগান এবং ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।


আপনার মন্তব্য