Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০৬:৪৩
আপডেট : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১০:০৭

ভারতের হামলার আশঙ্কায় জাতিসংঘের দ্বারস্থ পাকিস্তান

অনলাইন ডেস্ক

ভারতের হামলার আশঙ্কায় জাতিসংঘের দ্বারস্থ পাকিস্তান
ফাইল ছবি

কাশ্মীরের পুলওয়ামা হামলার পর তিক্ততা বেড়েছে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার সম্পর্কের। সন্ত্রাসে মদতপুষ্ট পাকিস্তানকে বিশ্ব দরবারে একঘরে করার ডাক দিয়েছে ভারত। সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আন্তর্জাতিক স্তরেও আশ্বাস মিলেছে ভারতের৷। এমন পরিস্থিতিতে ভারত আক্রমণ করতে পারে এমন আশঙ্কায় জাতিসংঘের দ্বারস্থ হলো পাকিস্তান

ভারত-পাকিস্তান সম্পর্কের উত্তেজনা প্রশমনে জাতিসংঘ মহাসচিবকে চিঠি দিয়েছেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্র শাহ মেহমুদ কুরেশি। জাতিসংঘের সেক্রেটরি জেনারেল চিঠিতে অ্যান্টনিও গুটারেসকে লেখা পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রীর চিঠিতে বলা হয়েছে, ভারত-পাকিস্তান সম্পর্কের উত্তেজনা কমাতে হস্তক্ষেপ করুক এই বিশ্ব সংস্থাটি৷

পাকিস্তানের অভিযোগ, তদন্তের আগেই পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার জন্য তাদের দায়ী করা হচ্ছে ভারতের তরফ থেকে। দেওয়া হচ্ছে যুদ্ধের হুমকিও। ইসলামাবাদের প্রশ্ন, কেন এই হুমকি দেওয়া হবে? কোনো প্রমাণ ছাড়াই কীসের ভিত্তিতে পাকিস্তানকে সন্ত্রাসের মদতদাতা বলা হবে? সম্পূর্ণ বিষয়টি খতিয়ে দেখে উপযুক্ত পদক্ষের দাবি জানানো হয়েছে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে।

মেহমুদ কুরেশি  চিঠিতে লিখেছেন, ‘যতই ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করা হোক, পুলওয়ামায় ভারতের সিআরপিএফ সেনাদের উপর হামলা চালিয়েছে কাশ্মীরের এক বাসিন্দা। ওই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত না করে পাকিস্তানকে আক্রমণ করাটা আদৌ উচিত নয়।’

মেহমুদ কুরেশি চিঠিতে আরও উল্লেখ করেছেন, ‘ভারত সচেতনভাবে পাাকস্তান বিদ্বেষকে উসকে দিয়ে তার রাজনীতিতে তার ফল তুলতে চাইছে। তাই পাকিস্তানের সঙ্গে শত্রুতা করছে তারা। তারা এ অঞ্চলে অশান্তির পরিবেশ, উত্তেজনা সৃষ্টি করছে।’

উল্লেখ্য, জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় গত ১৪ ফেব্রুয়ারি আত্মঘাতী জঙ্গি হামলার ৪৯ সিআরপিএফ সেনার নিহতের ঘটনার দায় স্বীকার করে পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন জঈশ-ই-মোহাম্মদ। হামলার ঘটনায় সর্বদলীয় বৈঠকের পর সেনাবাহিনীকে তার পূর্ণ ক্ষমতা প্রয়োগের অনুমতি দেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

 

বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ তাফসীর


আপনার মন্তব্য