১ ডিসেম্বর, ২০২২ ১২:১০

সত্যিই কি এক মেরুকেন্দ্রিক বিশ্বব্যবস্থার পতন হতে যাচ্ছে?

অনলাইন ডেস্ক

সত্যিই কি এক মেরুকেন্দ্রিক বিশ্বব্যবস্থার পতন হতে যাচ্ছে?

এক মেরুকেন্দ্রিক বিশ্বব্যবস্থার পতন হতে যাচ্ছে বলে দাবি করেছেন ভিয়েনায় জাতিসংঘের দফতরগুলোতে নিযুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূত মিখাইল উলিয়ানোভ।

একই সঙ্গে তিনি বলেছেন, “চীন, ইরান ও রাশিয়াকে বহু মেরুকেন্দ্রিক কূটনীতির ক্ষেত্রে একটি ‘নয়া ট্রায়াঙ্গেল’।

বৃহস্পতিবার সকালে নিজের অফিসিয়াল টুইটার পেজে দেওয়া এক পোস্টে এমন মন্তব্য করেন রুশ এই কর্মকর্তা।

চীন ও ইরান ও রাশিয়ার কূটনৈতিক প্রতিনিধিদলগুলোর মধ্যে একটি বৈঠকের ছবি প্রকাশ করে উলিয়ানোভ লিখেছেন, ভিয়েনায় এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। তিনি বলেন, “চীন, ইরান ও রাশিয়াকে বহুপাক্ষিক কূটনীতির নয়া ট্রায়াঙ্গেল মনে হচ্ছে না?”

রাশিয়ার এই সিনিয়র কূটনীতিক বলেন, খুব সহজেই এই কাঠামোটির অনেক বড় হওয়ার সুযোগ রয়েছে। (যদি বিশ্বের বেশিরভাগ দেশের কথা নাও বলি) বিশ্বের অনেক দেশ বহু মেরুকেন্দ্রিক বিশ্বব্যবস্থা দেখতে চায় এবং তারা বিশ্বের উপর একক দেশের আধিপত্যের ঘোর বিরোধী।

এর আগে উলিয়ানোভ গত সপ্তাহে এক টুইট বার্তায় রাশিয়ার তেল ও গ্যাসের দাম নির্ধারণ করে দেওয়ার প্রচেষ্টার সমালোচনা করে বলেছিলেন, এ ধরনের ‘সর্বগ্রাসী আচরণ’ কোনও ফল বয়ে আনবে না।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, মার্কিন নেতৃত্বাধীন এক মেরুকেন্দ্রিক বিশ্বব্যবস্থার দ্রুত পতন হচ্ছে এবং ওয়াশিংটনের সর্বগ্রাসী আচরণের বিরোধিতা করে একটি বহুমেরুকেন্দ্রিক বিশ্বব্যবস্থা প্রতিষ্ঠায় ইরান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। তবে ইরান একা এ কাজ করছে না বরং এ কাজে বেইজিং ও মস্কোর মতো দুই বড় শক্তিকে পাশে পেয়েছে তেহরান। সূত্র: স্পুটনিক নিউজ

বিডি প্রতিদিন/কালাম

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর