শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৩ জানুয়ারি, ২০২১ ২৩:৩১

সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন সমস্যা

পাকিস্তানকে কঠিন অবস্থায় নিয়ে এসেছে এফএটিএফ

প্রতিদিন ডেস্ক

সন্ত্রাসবাদী কাজ চালানোর অর্থায়নের উদ্দেশে অর্থ পাচার প্রতিরোধে পাকিস্তান কার্যকর কী কী ব্যবস্থা নিয়েছে তা গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করে চলেছে আন্ত-সরকারি সংস্থা ফিন্যানশিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স (এফএটিএফ)।

‘টাইমস অব ইন্ডিয়া’র খবরে বলা হয়, এফএটিএফ কড়া ব্যবস্থা নেওয়ায় পাকিস্তান ২০১৮ সালের জুন থেকে ধূসর তালিকাভুক্ত রয়েছে। সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন বন্ধ করার কাজে ক্রমাগত ব্যর্থতা প্রদর্শনকারী দেশকে এফএটিএফ কালো তালিকাভুক্ত করে থাকে। কালো তালিকাভুক্ত দেশকে উন্নত দেশগুলো কোনোরকম আর্থিক সহায়তা দেয় না। পাকিস্তানকে কালো তালিকাভুক্ত করা হবে কি হবে না, সে বিষয়ে ফেব্রুয়ারি মাসে সিদ্ধান্ত নেবে এফএটিএফ। বিভিন্ন দেশের কার্যকলাপ মূল্যায়নের জন্য ফেব্রুয়ারিতে বৈঠকে বসছে তারা।

ধূসর তালিকা থেকে নিজের নাম মুছে ফেলা আর সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোকে আড়াল দেওয়া দুটোই এখন পাকিস্তানের পক্ষে খুবই কঠিন। অন্যদিকে, যুক্তরাষ্ট্র কদিন আগে পাকিস্তানি দুটি সন্ত্রাসী গ্রুপের শনাক্তকরণ চিহ্ন পুনর্বিন্যস্ত করেছে।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এখন থেকে সন্ত্রাসী গ্রুপ লস্কর-ই-জংভি ‘হবে সংক্ষেপে’ ‘এলজে’ এবং লস্কর-ই-তৈয়বা হবে ‘এলইটি’। অনুরূপভাবে আইএসআইএল পেনিনসুলা হবে ‘আইএসআইএল-এসপি’। বিদেশি কয়েকটি সন্ত্রাসী গ্রুপের তৎপরতাও মূল্যায়ন করে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর। এগুলো হচ্ছে : জয়েশ রিজাল আল তারিক আল নকশাবন্দি, জামায়াত্ আনসারুল মুসলিমিনা ফি বিলাদিস সুদান, আল নুসরাত ফ্রন্ট, কন্টিনিউটি আইরিশ রিপাবলিকান আর্মি ও ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি।


আপনার মন্তব্য