শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৪ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ মার্চ, ২০২১ ২৩:৫২

যুক্তরাজ্যে প্রণোদনামুখী বাজেট

রেস্টুরেন্ট ভ্যাট থাকছে পাঁচ শতাংশই, বাড়ি কিনতে স্ট্যাম্প ডিউটি মওকুফ

আ স ম মাসুম, যুক্তরাজ্য

যুক্তরাজ্যে প্রণোদনামুখী বাজেট

চ্যান্সেলর ঋষি সুনাক বাজেট ঘোষণা করতে গিয়ে বলেছেন, তার পেশাদার জীবনের সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং কাজ হচ্ছে ২০২১ সালের বাজেট ঘোষণা। তিনি বলেন, এ বছরের বাজেট দেশের অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের বাজেট। যে কোনো মূল্যেই দেশের অর্থনীতিকে পুনরুজ্জীবিত করতে হবে। ২০২২ সালের মাঝামাঝি দেশের অর্থনীতির গতি ফিরিয়ে আনতে সরকার লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছে। সেই সঙ্গে ২০২২ সালে দেশের অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি ৭.৩ শতাংশ উন্নতির লক্ষ্যমাত্রা করা হয়েছে। বেকারত্বের হার আগের ধারণার চেয়ে ১১.৯ শতাংশ কমিয়ে ৬.৫ শতাংশে নিয়ে আসা হয়েছে। তিনি বুধবার যুক্তরাজ্য সময় ১২টা ৩০ মিনিটে বাজেট ঘোষণা করতে গিয়ে বলেন, দেশের খরচ ও ২ ট্রিলিয়ন জাতীয় ঋণের মধ্যে সমন্বয় করার চেষ্টা করা হয়েছে বাজেটে। তবে তিনি বলেন, দেশের অর্থনীতি ৩ শতাংশ সংকুচিত হবে আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে। গত এক বছরে দেশের অর্থনীতি কোন জায়গায় গেছে এটি বোঝাতে গিয়ে তিনি বলেন, ৭ লাখ মানুষ চাকরি হারাতে বাধ্য হয়েছেন, সেই সঙ্গে দেশের অর্থনীতি ১০ শতাংশ সংকুচিত হয়েছে, দেশ অতিরিক্ত ঋণের বোঝা মাথায় নিয়েছে। যুক্তরাজ্যে ২০২১ সালের বাজেট হবে শিক্ষা, চাকরি এবং বিনিয়োগবান্ধব। এককথায় বলা যায় এই বাজেট প্রণোদনামুখী বাজেট। মূলত দেশের অর্থনীতি ও দেশের নাগরিকদের রক্ষা করার জন্য এই বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। প্রণোদনামুখী এই বাজেটে ৪০৭ বিলিয়ন পাউন্ডই থাকছে শুধু বিভিন্ন সহায়তার জন্য। সবচেয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে যে বিষয় নিয়ে সেটি হচ্ছে সপ্তাহে ২০ পাউন্ড ইউনিভার্সেল ক্রেডিট যা এই এপ্রিল পর্যন্ত চালু থাকার পর বন্ধ হওয়ার কথা ছিল। এই সপ্তাহে ২০ পাউন্ড আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চালু রাখার কথা বলেছেন ঋষি সুনাক। ফারলো স্কিম সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বহাল রাখা হবে বলে জানিয়েছেলে চ্যান্সেলর ঋষি সুনাক। জব রিটেনশন স্কিমের অধীনে বর্তমানে প্রায় ৪ মিলিয়নের বেশি কর্মকর্তা-কর্মচারীকে ফারলো দিয়ে যাচ্ছে সরকার। তবে জুলাই থেকে ১০ শতাংশ, আগস্ট থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ২০ শতাংশ কন্ট্রিবিউট করার জন্য চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোকে আহ্বান জানাবে সরকার। এ ছাড়া নতুন করে আরও ৬ লাখ সেলফ ইমপ্লয়মেন্ট কর্মী যারা গত বছর ক্যাশ গ্রান্টের যোগ্য ছিলেন না তারা এ বাজেটের পর মাসে সর্বোচ্চ ২৫০০ পাউন্ড পর্যন্ত গ্রান্ট পাবেন। এ ছাড়াও বেনিফিট, রেস্টুরেন্ট সেক্টরের ভিএটি, বিজনেস রেট মওকুফ, ব্যবসা সহায়তাসহ আরও কিছু সুখবর রয়েছে এই বাজেটে। যেমন বাড়ি কেনার জন্য স্ট্যাম্প ডিউটি মওকুফ, যেটি গত জুলাইয়ে ১২৫ হাজার পাউন্ড থেকে ৫০০ হাজার পর্যন্ত করা হয়েছিল সেটি অব্যাহত থাকবে আগামী জুন পর্যন্ত। সেই সঙ্গে ৫ শতাংশ ডিপোজিট দিয়ে বাড়ি কেনার যে সুযোগ সেটির কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, সরকার চায় সবাই নিজের বাড়ির মালিক হোক।