Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ জানুয়ারি, ২০১৯ ২২:৩৭

স্বামীকে ডিভোর্স দেওয়ায় পরীক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম

মাদারীপুর প্রতিনিধি

স্বামীকে ডিভোর্স দেওয়ায় পরীক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম

প্রবাসী স্বামীকে ডিভোর্স দেওয়ায় এস এস সি পরীক্ষার্থীকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মক জখম করেছে শ্বশুরবাড়ির লোকজন। মাদারীপুরের কালকিনিতে গতকাল সকালে এ ঘটনা ঘটে। আহত স্কুলছাত্রী সুকতারাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সে কালকিনি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মানবিক বিভাগের ছাত্রী। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার সকালে বাড়ি থেকে প্রাইভেট পড়তে যাচ্ছিল সুকতারা। রাস্তায় বের হলে একা পেয়ে কয়েকজন বখাটে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে ফেলে রেখে যায়। পরে স্থানীয়রা অজ্ঞান অবস্থায় ওই ছাত্রীকে দেখে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

স্কুল ছাত্রীর মা মাহিনুর বেগম জানান, দেড় বছর আগে উভয় পরিবারের সম্মতিতে মোবাইলে বিয়ে হয় সুকতারার। বিয়ের ৭/৮ মাস পরে সুকতারা রুমনকে ডিভোর্স দিয়ে দেয়। আমাদের ধারণা এ কারণেই সুকতারাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করেছে শ^শুরবাড়ির লোকজন। এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই।

রুমনের ভাই শামন আকন বলেন, আমার ভাই  সোমবার বিদেশ থেকে ঢাকায় নেমেছেন। এখনো আমরা ঢাকায়। আমি বা আমরা এ কাজ কীভাবে করব। আমাদের ফাঁসানোর জন্য এই কাজ করা হচ্ছে। এ ঘটনার সঙ্গে আমাদের পরিবারের কেউ জড়িত নয়। কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ডা. রেজাউল করিম বলেন, স্কুলছাত্রীর মাথার আঘাতটা একটু গুরুতর। শরীরের বিভিন্ন অংশেও আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। সাধ্যমতো চিকিৎসা দিয়েছি। এখন পরিবারের লোকজন উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশালে নিয়ে যাচ্ছে। কালকিনি থানার ওসি মোফাজ্জেল হোসেন জানান, বিষয়টি বিয়ে সংক্রান্ত জেরে। মেয়ের পরিবার যদি মামলা বা আইনগত ব্যবস্থা নিতে চায়, তাহলে আমরা ব্যবস্থা নেব।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর