Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ১৯:৫৮
আপডেট : ১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ২০:০৫

ফেরদৌসের পর এবার নূরকে ভারত ছাড়ার নির্দেশ

অনলাইন ডেস্ক

ফেরদৌসের পর এবার নূরকে ভারত ছাড়ার নির্দেশ
লোকসভা নির্বাচনে প্রচারণায় গাজী আবদুন নূর

লোকসভা নির্বাচনে একটি দলের প্রচারে যোগ দেওয়ার জেরে এবার অভিনেতা গাজী আবদুন নূরেরও ভিসার মেয়াদ বাড়ায়নি ভারত। আর তাই বেআইনিভাবে অবস্থান করার দায়ে গাজী আবদুন নূরকে অবিলম্বে দেশত্যাগের নির্দেশ দিয়েছে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এর আগে অভিনেতা ফেরদৌসদকে ভিসা বাতিল করে বাংলাদেশে ফেরত পাঠিয়েছিল দেশটি।

দমদম লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী অধ্যাপক সৌগত রায়ের হয়ে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিয়েছিলেন নূর ওরফে রাজচন্দ্র। রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা তৃণমূল নেতা মদন মিত্রের সঙ্গে একটি প্রচার সভাতেও দেখা গেছে নূরকে। রাজ্য বিজেপি এ বিষয়ে সরব হয় এবং নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানায়। এরপরই বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এই নির্দেশ সামনে এলো।

উল্লেখ্য, এর আগে রায়গঞ্জের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী কানহাইয়া লাল আগরওয়ালের হয়ে প্রচারে অংশ নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণায়ের হস্তক্ষেপে ভারত ছেড়েছেন ফেরদৌস। আশঙ্কা ছিল নূরের ক্ষেত্রেও। মদন মিত্রের সঙ্গে হুডখোলা গাড়িতে সৌগত রায়ের হয়ে প্রচারে গিয়েছিলেন অভিনেতা।

তবে সূত্রের খবর, মদন মিত্রের সঙ্গে ব্যক্তিগত সম্পর্কের জেরেই প্রচারে গিয়েছিলেন তিনি। ফেরদৌসের ঘটনার পর নিজের জন্য উদ্বিগ্ন ছিলেন অভিনেতা। অবশেষে আশঙ্কা সত্যি হলো। তার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

রাণী রাসমণি ধারাবাহিকের সৌজন্যেই জনপ্রিয় হয়েছিলেন তিনি। বিগত দু’বছর ধরে অনস্ক্রিন মাতিয়ে রেখেছিলেন তিনি। ধারাবাহিকে তার জনপ্রিয়তা এতটাই ছিল যে, রাজচন্দ্রের প্রস্থানের পর দর্শক আবারও ফিরিয়ে আনার অনুরোধ করেছিলেন। এমতবস্থায়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এই সিন্ধান্ত সরাসরি নূরের অভিনয় জীবনে প্রভাব ফেলতে পারে বলেই মত টলিপাড়ার একাংশের।

বিডি প্রতিদিন/১৮ এপ্রিল ২০১৯/আরাফাত


আপনার মন্তব্য