Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ মে, ২০১৯ ০৯:০৮

স্বচ্ছতা আনতে ভারতে 'ইভিএমে' প্রাপ্ত ভোট মেলানো হবে 'ভিভিপ্যাট' যন্ত্রে

অনলাইন ডেস্ক

স্বচ্ছতা আনতে ভারতে 'ইভিএমে' প্রাপ্ত ভোট মেলানো হবে 'ভিভিপ্যাট' যন্ত্রে

ইভিএমে (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) দ্রুত ভোট দেওয়া ও গণনা করা গেলেও অনেক ক্ষেত্রে ভারতে অভিযোগ উঠত যে ইভিএমে এক প্রার্থীকে ভোট দেওয়া হলেও অন্য প্রার্থীর কাছে সেই ভোট চলে যাচ্ছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ইভিএমে স্বচ্ছতা আনতে ভারতের নাগাল্যান্ড বিধানসভার নির্বাচনে একটি কেন্দ্রে 'ভিভিপ্যাট' যন্ত্র পরীক্ষামূলকভাবে প্রথম চালু করা হয়। এরপর গত ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে আটটি কেন্দ্রে এই যন্ত্র ব্যবহার করা হয়েছিল। ২০১৭ সালে গোয়া বিধানসভা নির্বাচনে সব বুথেই ব্যবহৃত হয়েছিল ভিভিপ্যাট। আর এবার ভারতের সব কেন্দ্রের সব বুথে এই যন্ত্র লাগানো হয়েছে। 

বিবিসি বাংলার খবর, ভারতের সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে প্রতিটি কেন্দ্রের ৫টি করে বুথের ভিভিপ্যাট যন্ত্রের সঙ্গে ইভিএমের ভোট মিলিয়ে দেখতে হবে। এই কারণে ভারতের লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল জানতে এবার অনেক দেরি হতে পারে বলে মনে করছে নির্বাচন কমিশন।

কর্মকর্তারা মনে করছেন, বৃহস্পতিবার সকাল আটটা থেকে গণনা শুরু হলেও ২৩ তারিখ অনেক রাতে হয়তো ফলাফল জানা যাবে। তবে প্রতি রাউন্ডের শেষে অন্যান্য বারের মতোই ফলাফল জানানো হবে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে।

নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, "ইভিএমের ভোট গণনার পরে ভিভিপ্যাট যন্ত্রের কাগজের স্লিপ গোণা শুরু হবে। তারপরে দুটি যন্ত্রের ভোটের সংখ্যা মিলিয়ে দেখা হবে। ইভিএমের ভোটের সঙ্গে ভিভিপ্যাট যন্ত্রের ফলাফল না মিললে আবারও গুণতে হবে ভোট। বিষয়টা এমন একটি ভোট না মিললে আবারও ভোট গণনা করা হবে।

তবে বুথে ভিভিপ্যাট ব্যবহার করা হচ্ছে না। কেন্দ্র পিছু পাঁচটি করে বুথের ইভিএম আর ভিভিপ্যাটের ফল মেলানো হবে। এই পাঁচটি বুথ বাছাই করা হবে লটারির মাধ্যমে।

রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের শিক্ষক সব্যসাচী বসু রায় চৌধুরী কয়েক দশক ধরে নির্বাচনের ফলাফল বিশ্লেষণ করেন। তিনি বলছিলেন, "প্রতিটা ভিভিপ্যাট যন্ত্রের স্লিপ একটা একটা করে গুণতে হবে। যদি ইভিএমের সংখ্যার সঙ্গে সেটা না মেলে তাহলে আবারও গুণতে হবে।"

"তাই ব্যালটের যুগে যেমন গণনা শেষ হতে প্রায় ৭২ ঘণ্টা সময় লাগত, আমার ধারণা এবার প্রক্রিয়াটা শেষ হতে অন্তত তিরিশ ঘণ্টা সময় লাগবে।"

তিনি ব্যাখ্যা করছিলেন, যদি একটি ইভিএমে কোনও প্রার্থী ৭২৩টি ভোট পায় আর ভিভিপ্যাটের স্লিপ গুণে দেখা গেল ৭২২ হচ্ছে, তাহলে স্বাভাবিকভাবেই আবারও গুণতে হবে।

নির্বাচন কর্মকর্তারা মনে করছেন, সকাল ৮টা থেকে ভোটগণনা শুরু হলেও অনেক রাতে হয়তো ফল জানা যাবে। তবে প্রতি রাউন্ডের গণনা শেষে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে ফল জানানো হবে।

এদিকে, শেষ দফা ভোটের পর ক্ষমতাসীন বিজেপি জোটের জয়ের আভাস দেয় বুথফেরত সমীক্ষা। যদিও সেটা মানছে না বিরোধী জোট। অবশ্য বুথফেরত সমীক্ষা মিলবে কি মিলবে না সেটা আজই যাবে। ভোটগণনাকে কেন্দ্র করে ভারতজুড়ে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে।

বিডি-প্রতিদিন/২৩ মে, ২০১৯/মাহবুব


আপনার মন্তব্য