শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ মে, ২০১৯ ০৯:৪০
আপডেট : ২৩ মে, ২০১৯ ০৯:৪৫

ইভিএম নিয়ে বিতর্কের মাঝে অমিত শাহর ৬টি প্রশ্ন

অনলাইন ডেস্ক

ইভিএম নিয়ে বিতর্কের মাঝে অমিত শাহর ৬টি প্রশ্ন

বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ বিরোধীদের তোলা ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) বিকৃত করার অভিযোগকে নস্যাৎ করে দিয়েছেন।আজ ভোট গণনা শুরুর আগে নির্বাচন কমিশন ভিভিপ্যাটের স্লিপের সঙ্গে ইভিএম মিলিয়ে দেখার বিরোধীদের দাবিকে উড়িয়ে দিয়েছে। এ ব্যাপারে বিরোধীদের জেদকে অবজ্ঞা করার পাশাপাশি বিভিন্ন রাজ্যে পাহারাহীন ভোটযন্ত্র স্থানান্তরিত করার ব্যাপারটিকেও উড়িয়ে দিচ্ছে বিজেপি।

এই বক্তব্যই ধরা পড়েছে অমিত শাহর হিন্দিতে টুইট করা ‘ছ'টি প্রশ্ন'-তেও। শুরুতেই তিনি দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে কটাক্ষ করেন যার আম আদমি পার্টি ‘দিল্লিতে ৭০-এ ৬৭টি আসন পেয়ে ঐতিহাসিক জয় পেয়েছিল। যদি ইভিএম সন্দেহজনক হত, তাহলে এই দলগুলি কেন অফিসে আসেনি?

অমিত শাহ এও বলেন, বিরোধী দলগুলি নির্বাচন কমিশনকে ‘হ্যাকাথন'-এর চ্যালেঞ্জ করেনি। এমনকী, সম্পূর্ণ স্বচ্ছতা আনতে ভিভিপ্যাটও নিয়ে আসা হয়। তিনি একথা বলে জানতে চান, গোটা পদ্ধতিকে বারবার প্রশ্ন করাটা কতটা শোভনীয়? গণনার দু'দিন আগে গণনা পদ্ধতি পরিবর্তন করার বিরোধী দলের দাবিটি ‘অসাংবিধানিক', কেননা তা সব রাজনৈতিক দলের কাছে সম্মতি ও গ্রহণযোগ্যতা পায়নি।

তিনি এও বলেন, এগজিট পোল বিজেপির জয়ের সম্ভাবনা কথা বলার পরেই বিরোধীরা এই ইস্যুটি তুলে ধরেছে। দলীয় সহকর্মী ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অরুণ জেটলির কথারই প্রতিধ্বনি তুলে তিনি বলেন, আমি বিরোধীদের বলতে চাই এগজিট পোল তৈরি হয় বিভিন্ন ব্যক্তির সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে, ইভিএম যন্ত্রের ভিত্তিতে নয়। বিরোধীরা কীভাবে এগজিট পোলের ব্যাপারে ইভিএম নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারে?

তিনি টুইটে লেখেন, সুপ্রিম কোর্ট তিনটি ভিন্ন জনস্বার্থে মামলায় বিচার করে ইভিএম নিয়ে তাদের মত জানিয়েছে। বলা হয়েছে, প্রতিটি বিধানসভা নির্বাচনক্ষেত্রে ৫টি ভিভিপ্যাট গণনা করা হবে। তার মানে বিরোধীরা কি সুপ্রিম কোর্টের জ্ঞান নিয়েও প্রশ্ন তুলছে?

তিনি টুইটে লেখেন, কোনও কোনও রাজনৈতিক দল প্রতিহিংসা ছড়ানোর হুমকি দিয়েছে ভোটের ফল তাদের আশানুরূপ না হলে। এই ধরনের বক্তব্য অত্যন্ত আপত্তিকর। আমি বিরোধীদের বলতে চাই, হিংসার কোনও জায়গা নেই। আমি বিরোধীদের কাছে জানতে চাই এই ধরনের অগণতান্ত্রিক মন্তব্য করে তারা কাকে চ্যালেঞ্জ করতে চাইছে?

সূত্র: এনডিটিভি
 
বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য