১৪ নভেম্বর, ২০২১ ১৩:৩২
দুইজনের জবানবন্দি

ব্যাংকের প্রশ্নফাঁস : রাতে উত্তর মুখস্থ করানো হয় ১০১ চাকরিপ্রার্থীকে

অনলাইন ডেস্ক

ব্যাংকের প্রশ্নফাঁস :  রাতে উত্তর মুখস্থ করানো হয় ১০১ চাকরিপ্রার্থীকে

প্রতীকী ছবি

রাষ্ট্রায়ত্ত ৫ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা ছিল গত ৬ নভেম্বর। পরীক্ষার আগের রাতে কেন্দ্রের কাছে ১০টি বাসায় বুথ বানানো হয়। সেখানে ১০১ চাকরিপ্রার্থীকে প্রশ্নের উত্তর মুখস্থ করানো হয়। এ ছাড়া আরও শতাধিক প্রার্থীকে অনলাইনে উত্তর দেওয়া হয়। ফলে প্রশ্ন ছড়িয়ে পড়ে।

প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনায় গ্রেফতার ৬ জনকে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে এসব তথ্য উঠে এসেছে। গতকাল শনিবার রিমান্ড শেষে জনতা ব্যাংকের অফিসার (বরখাস্ত) সামশুল হক শ্যামল ও আহছানউল্লা ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির কর্মী রয়েল ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

সূত্র জানায়, আহছানউল্লার রেজিস্ট্রার অফিসের সহায়ক দেলোয়ার হোসেন প্রশ্ন খামে ভরার সময় চুরি করতেন। সেই প্রশ্ন দেলোয়ার দিতেন আইসিটি সেন্টারের ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট পারভেজ মিয়া ও টেকনিশিয়ান মোক্তারুজ্জামান রয়েলকে। তাদের কাছ থেকে পেত ব্যাংকার সিন্ডিকেট।

মোক্তারুজ্জামান রয়েল জবানবন্দিতে জানান, আগের চার নিয়োগ পরীক্ষায় দেলোয়ার ও পারভেজের সহায়তায় তিনি প্রশ্ন পেয়েছেন। প্রশ্ন আকারে তাদের কাছে সেটি থাকলেও ‘নিরাপত্তার স্বার্থে’ চুক্তিতে আসা চাকরিপ্রার্থীদের তারা উত্তর তৈরি করে দিতেন। এ জন্য হোয়াটসঅ্যাপে যোগাযোগ করতেন ব্যাংকাররা। তারাই চাকরিপ্রার্থী ঠিক করতেন।

তদন্তকারী সূত্র জানায়, রেজিস্ট্রার অফিসের অফিস সহকারী দেলোয়ার হোসেন প্রশ্নপত্র খামে ভরার সময় চুরি করে রয়েল ও পারভেজকে দিতেন। রয়েল সেই প্রশ্ন দিতেন জনতা ব্যাংকের অফিসার সামশুল হক শ্যামল এবং রূপালী ব্যাংকের জানে আলম মিলনকে। মিলন ও শ্যামলের মাধ্যমে প্রশ্ন চলে যেত জনতা ব্যাংকের অফিসার এমদাদুল হক খোকন ও পূবালী ব্যাংকের কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান মিলনের কাছে। তাদের তত্ত্বাবধানে রাইসুল স্বপন (গ্রেফতার), মাইনুল, আতিক, জাকির, হেলাল, টিটু, আজাদ ও শীতলের মাধ্যমে উত্তর আকারে চাকরিপ্রার্থীর কাছে যেত। পারভেজ মিয়া আলাদাভাবে প্রশ্ন দিতেন জাহাঙ্গীর জাহিদ, রবিউল ইসলাম এবং জনতা ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার সোহেল রানার কাছে। তারা কবীর, প্রবীর, নবাব ও সুমনের কাছে প্রশ্ন দিতেন। উত্তরা, মিরপুর ও গাবতলীতে চক্রের সদস্য জাহিদ, জানে আলম মিলন ও মোস্তাফিজুর রহমান মিলনের তত্ত্বাবধানে গত ৬ নভেম্বরের পরীক্ষার আগের রাতে ৬০ জনকে উত্তর মুখস্থ করানো হয়। মাতুয়াইলের একটি বাসার বুথে মমিন ও সামাদ ১০ জনকে উত্তর মুখস্থ করান। একইভাবে শাওন, হাকি, কাফি, রাজীব, লিটু, উজ্জল ও গোলাম রব্বানীর বাসার বুথে উত্তর মুখস্থ করানো হয়। 

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ

 

 

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর