শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৯:৪৬
আপডেট : ২৫ ডিসেম্বর, ২০২০ ১১:৩০
প্রিন্ট করুন printer

অনেকে বলছেন, আমার অসুখের খবর কেনো লিখতে গেলাম

পীর হাবিবুর রহমান

অনেকে বলছেন, আমার অসুখের খবর কেনো লিখতে গেলাম
পীর হাবিবুর রহমান

অনেকে বলছেন, আমার অসুখের খবর কেনো লিখতে গেলাম। আমি বলেছি, সত্য যতোই নির্মম হোক তা প্রকাশের পক্ষে আমি ছিলাম।লেবানিজ আমেরিকান কবি দ্যা প্রফেট খ্যাত কহলিল জিবরান, জেলখাটা বিপ্লবী কবি নাজিম হিকমত ইতিহাসে ঠাই নিয়ে অকাল মৃত্যুবরণ করেছেন। আমাদের আবুল হাসান থেকে রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ অমর সৃষ্টি রচনা করে বড় অকালে গেছেন। আরও কত স্বজন! আমার চারটি ভাইবোন হারিয়ে গেলো!

জীবনতো আমার পোড় খাওয়া, যুদ্ধের অবিরাম। দেশ বিদেশ থেকে যা ভাবিনি তাই আমাকে কত দূরে থাকা স্নেহশীল মানুষরা চমকে দিয়েছেন তাদের শিশুর মতোন কান্নায়, বাকরুদ্ধ কণ্ঠে। আমার প্রতি অগণিত মানুষের এতো ভালোবাসা, এতো টান আমাকে বাঁচার জন্য শক্তি যোগায়। আমিতো মহান সর্বশক্তিমান আল্লাহর অসীম করুনায় ও মানুষের দোয়ায় তিনবার হার্টে রিং পরিয়েছি। বেপরোয়া চলেছি। দেশ বিদেশে ৬ বার এনজিওগ্রাম করেছি। নির্জিবের জীবন নেইনি। মানুষ ও দেশের স্বার্থে লড়েছি।

আমার 'মাল্টিপল মায়োলমা'নামের রোগ গোপনে বসত গড়েছে শরীরে। রবিবার যাচ্ছি মুম্বাই। সোমবার থেকে চিকিৎসা নেবো ভারতে যাকে অংকলজির ভগবান বলা হয় সেই পদ্মশ্রী ভূষণপ্রাপ্ত ডা. সুরেশ আদভানির কাছে। উন্নত হাসপাতাল, সার্ভিস সেবা আছে। আমার প্রবল বিশ্বাস আল্লাহর রহমতে মানুষের ভালোবাসায় হাসতে হাসতেই ফিরে আসবো। কত প্রিয়জন ফোন করেন, ইনবক্সে মেসেজ দেন, মোবাইলে বার্তা। আমি জবাব দিতে পারিনা। খারাপ লাগে।

আমার চন্দ্রস্মিতাকে বলি মুম্বাই আমার বড় মেয়ে সাইরা থাকে, সে রেগে যায়। রেখার বাংলো আমার জন্য সাজানো হয়েছে, মাধুরী অপেক্ষায়, প্রিয়াংকা অভিমানে নিকি জোনসের কাছে চলে গেছে! সে রাগে অর্ধবিশ্বাস করে। বুকভরে আরব সাগরের বাতাস নেবো। জুহু বিচে ঘুরবো। ডাক্তাররা আমাকে ১/২মাসের প্রস্তুতি নিয়ে যেতে বলছেন। এভাবে বাবা মেয়ের খুনসুটি চলে!

আমি আজন্ম স্রোতের বিপরীতে সাতার কাটা মানুষ, আমি সোজা সাপ্টা মুখের উপর কথা বলা, রুখে দাঁড়ানোর, তর্কযুদ্ধের আবেগপ্রবণ সরল মানুষ। বোকা নই, মানুষকে বিশ্বাস করা। প্রতারণা অপরাধ নয়, মানুষের বিপদে ঝাঁপ দেয়া মানুষ। আমি ফের ফিরে আসবো প্রিয় প্রতিদিনে, সহকর্মী, প্রিয় শহর, দুনিয়ায় ছড়িয়ে থাকা মানুষের মাঝে। আমার ইবাদত অনেকটা বাকি রয়েছে। আল্লাহ নিশ্চয় আমাকে ফিরিয়ে দেবেন। মানসিক শক্তি কেউ হারাবেন না। প্রাণবন্ত সতেজ জীবন উপভোগ করুন। এক মুহুর্তের আনন্দই জীবনের অমূল্য সম্পদ। এ আমার বিশ্বাস। মৃত্যুই একমাত্র সত্য বাকি সব অনিশ্চিত। তাই বলে আমার এখনই নয়, আল্লাহ বাকি অনেক কাজ সমাধানে বাঁচিয়ে রাখবেন। আমি তার কাছে মানে আমার বিবেকের কাছে অঙ্গিকারবদ্ধ। আমার সকল ভালোবাসার মানুষ ও গুণমুগ্ধ ভক্ত পাঠকের কাছে হৃদয় উজাড় করা দোয়া চাইছি। সবার জন্য আমারও অগাধ ভালোবাসা। আমার বিপদে আপদে যাদের কাছে পেয়েছি, তারাও পাশে আছেন। কত মানুষের ভালোবাসার কাছে আমি ঋণী। আমি সেই তারুণ্যের শক্তি নিয়ে ফিরছি। আল্লাহর রহমতে ফিরবো ইনশাল্লাহ।

লেখক: নির্বাহী সম্পাদক, বাংলাদেশ প্রতিদিন

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর