Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১১ জুলাই, ২০১৯ ১৮:১৪

নিউ ইয়র্কে কুমিল্লা সোসাইটির বর্ণাঢ্য বনভোজন

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিউ ইয়র্কে কুমিল্লা সোসাইটির বর্ণাঢ্য বনভোজন

আনন্দঘন পরিবেশে অনুষ্ঠিত হল কুমিল্লা সোসাইটি অব ইউএসএ এর বার্ষিক বনভোজন। গত ৭ জুলাই লং আইল্যান্ড এর বেথপেজ স্টেট পার্কের মনোরম পরিবেশে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত জেলার প্রায় পাঁচ শতাধিক লোকের অংশগ্রহণে সম্পন্ন হয় এ বনভোজন।

সংগঠনের সভাপতি আবুল খায়ের আকন্দ'র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন চৌধুরীর সঞ্চালনায় বনভোজন উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি ডা. এনামুল হক।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বনভোজন কমিটির আহ্বায়ক সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. আলী আহমেদ, প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও উপদেষ্টা এবং সাবেক সভাপতি আবুল বাশার মিলন, সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হাজী পেয়ার আহমেদ, প্রধান সমন্বয়কারী মাস্টার সিরাজুল ইসলাম, যুগ্ম আহ্বায়ক জাকির হোসেন, সদস্য সচিব আ.স.ম খালেদুর রহমান, যুগ্ম সদস্য সচিব তসলিমা পাটোয়ারী এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদ আবুল কালাম ভুঁইয়া, আজহারুল ইসহাক খোকা, উপদেষ্টা মোফাজ্জল হোসেন, হাজী নরুল ইসলাম, ইউনুস সরকার, মিয়া মোহাম্মদ দুলাল, শওকত পাটোয়ারী, আবু তালেব চান্দু, হাজী আব্দুর রহমান, ফেরদৌস আলম, এম.আর. সেলিম, মনিরুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল খালেক, হাজী রেহানউদ্দিন আকন্দ, আব্দুল হালিম মুন্সী, শামসুদ্দীন বশীর, ফারুক আহমেদ মিয়াজী, ইঞ্জিনিয়ার মাইনউদ্দিন, মোহাম্মদ সেলিম, বিল্লাল হাজারী, ডা. মোস্তফা, আব্দুল কাদের, ফিরোজ আকন্দ, আশরাফুল আলম পাপ্পু, লিটন, মো. আকরামুল হক, লোকমান হোসেন, মো. এইচ.আর. ভুইয়া (আখলাছ), মনসুর আহমেদ মিয়াজী, ডা. আলী আহমদে এর সহধর্মিনী কামরুন নাহার, শোভা বেগম, শিরিন আক্তার শিল্পী, ইসরাত জাহান, তাহমিনা চৌধুরী, রুবি কাদের, মাহরুবা আহমেদ, ইঞ্জিনিয়ার সাব্বির আল রাইন, রোকেয়া বেগম, রাবিয়া খাতুনসহ কমিউনিটির গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

উদ্বোধন শেষে প্রধান অতিথি ডা. এনামুল হক সফল ও আনন্দময় বনভোজন আয়োজনের জন্য কুমিল্লা সোসাইটির ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, এ সংগঠনটি সর্বদা শৈল্পিক মননে বিভিন্ন সৃজনশীলতার উৎকর্ষ সাধনে বাঙালি কমিউনিটির মুখ উজ্জ্বল করেছে। 

এরপর বনভোজন কমিটির আহ্বায়ক ডা. আলী আহমেদ অতিথিদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, আপনাদের উপস্থিতি আমাদেরকে অনুপ্রাণিত করে। বনভোজনকে সফল করতে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। 

প্রধান পৃষ্ঠপোষক আবুল বাশার মিলন তার বক্তব্যে বনভোজনে অংশগ্রহণকারী সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, আপনাদের স্বতঃস্ফুর্ত অংশগ্রহণেই বনভোজন সফল, সার্থক ও সৌন্দর্যময় হয়েছে।

উদ্বোধন শেষে শুরু হয় ছোট থেকে বড় সকল নারী-পুরুষের খেলাধুলা পর্ব। শিশুদের দৌঁড় প্রতিযোগিতায় অসংখ্য শিশু কিশোর অংশগ্রহণ করে। এরপরই শুরু হয় ক্রিকেট ফ্যান্টাসি গেম। এ খেলায় অংশগ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মত। খেলা শেষে আই.টি ইঞ্জিনিয়ার লোকমান হোসেন চ্যাম্পিয়ন এবং সংগঠনের কার্যকরী সদস্য সাইফুল আলম রানার আপ ট্রফি অর্জন করেন। উল্লেখ্য, ক্রিকেট ফ্যান্টাসি গেমটি স্পন্সর করেন সংগঠনের সভাপতির সহধর্মিনী শিরীন আক্তার শিল্পী।

বনভোজনে বাড়তি আনন্দের মাত্রা যোগ করে মহিলাদের বালিশ খেলা। প্রায় অর্ধশতাধিক নারীর অংশগ্রহণে যথাক্রমে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় হন জান্নাত আলম সুমী, মিসেস রহমান, জেসমিন রহমান। বিভিন্ন ক্রীড়া প্রতিযোগিতার বিশেষ আকর্ষণ ছিল প্রদর্শনী ফুটবল ম্যাচ। সংগঠনের সভাপতি আবুল খায়ের আকন্দ এর নেতৃত্বে আর্জেন্টিনা বনাম সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে ব্রাজিলের মধ্যকার ম্যাচে ব্রাজিল ১-০ গোলে জয়লাভ করে। একমাত্র জয়সূচক গোলটি করেন সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা ডা. আলী আহমদের জামাতা ইঞ্জিনিয়ার সাব্বির আল রাইন। তিনি খেলায় ম্যাচ সেরা পুরস্কার লাভ করেন। এছাড়াও ফুটবল খেলায় চমৎকার নৈপুণ্য প্রদর্শন করেন পঞ্চাশোর্ধ্ব জামাল হোসেন, আখলাছ, জামিল মিয়াজী, হাবিবউল্লাহ, জুবায়ের মিয়াজী, বাবু, এইচ.এম. মিজান, আলম।

ভোজনবিলাসী সকলের জন্য পরিবেশন করা হয় বিখ্যাত খলিল বিরিয়ানী হাউসের সুস্বাদু খাবার। তারপরই শুরু হয় নিউ ইয়র্কের জনপ্রিয় শিল্পী মামুন ও ত্রিনিয়া হাসানের পরিবেশনায় মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। শিল্পী মামুন ও ত্রিনিয়া তাদের গানে বনভোজনকে আনন্দময় করে তুলেন। এ ছাড়াও বাসে ভ্রমণকারীদের গান গেয়ে মুগ্ধ করেন শিল্পী আরিফ মাহমুদ ও সংগঠনের প্রচার সম্পাদক আবুল আলীম মিয়া।

সবশেষে অনুষ্ঠিত হয় বিশেষ আকর্ষণ র‌্যাফেল ড্র। প্রথম পুরস্কার নিউ ইয়র্ক-ঢাকা-নিউ ইয়র্ক বিমান টিকেট জয়লাভ করেন আলম সরকার। দ্বিতীয় পুরস্কার ৫২ ইঞ্চি এলইডি টিভি জয়লাভ করেন ফারহানা মিতু এবং তৃতীয় পুরস্কার ল্যাপটপ জেনে এইচ.এম. মিজানুর রহমানসহ আরও অনেকে অন্যান্য আকর্ষণীয় পুরস্কারসমূহ লাভ করেন। ফুড কুপন থেকেও পুরস্কার প্রদান করা হয়। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানটি সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন চৌধুরী তার চমৎকার উপস্থাপনায় মাতিয়ে রাখেন।

বনভোজনটি সফল করতে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন এইচ.এম.মিজানুর রহমান, সাইফুল আলম, জামাল হোসেন, ইউনুস খান, মিজানুর রহমান খান, তাছলিমা আক্তার, মাইশা আকন্দ, সাদিয়া চৌধুরী, সামিহা চৌধুরী, আসিফুল আকন্দ, ছবি রানীসহ আরো অনেকে। 

এছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ওয়ার্ল্ড ট্যুর এ্যান্ড ট্রাভেল্স, ফ্যামিলী ফার্মেসী, স্টার্লিং ফার্মেসী, আলাস্কা গ্রোসারী, এ.বি.সি ওয়ার্লেসসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বিশেষভাবে সহযোগিতা করেন। পরিশেষে সংগঠনের সভাপতি আবুল খায়ের আকন্দ তার সমাপনী বক্তব্যে বনভোজনে অংশগ্রহণকারী সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন এবং সকলের শুভকামনায় বর্ণাঢ্য বনভোজনের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য