শিরোনাম
প্রকাশ : ৭ আগস্ট, ২০২০ ১৬:০১

স্টেপনীর পরিত্যক্ত কার পার্কে হচ্ছে ২৪ কাউন্সিল ফ্ল্যাট

যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি:

স্টেপনীর পরিত্যক্ত কার পার্কে হচ্ছে ২৪ কাউন্সিল ফ্ল্যাট

স্টেপনী গ্রীণের একটি পরিত্যক্ত কার পার্ক, যা এক সময় সমাজ বিরোধী কার্যকলাপের নিরাপদ স্থানে পরিণত হয়েছিলো, সেখানে এখন নির্মাণ করা হচ্ছে ২৪টি কাউন্সিল হোম। ২০০০ নতুন কাউন্সিল বাড়ি নির্মাণের যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল, তারই অংশ হিসেবে জুবিলি স্ট্রিটের লেভিটাস হাউসটি সর্বশেষতম উন্নয়ন। এটি তিনটি সাইটের মধ্যে প্রথম যার নির্মাণ কাজ এই গ্রীষ্মেই শেষ হওয়ার কথা। সবগুলো সাইটের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলে ৭৭টি কাউন্সিল ফ্লাট সরবরাহ করা সম্ভব হবে। 

নতুন এই বিল্ডিংয়ের নামকরণ করা হয়েছে ফ্যাসিবাদ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম প্রচারক প্রয়াত ম্যাক্স লেভটাসের নামে, যিনি ক্যাবল স্ট্রিট লড়াই নামে পরিচিত বর্ণবাদ-ফ্যাসিবাদ বিরোধী আন্দোলনে অংশ নিয়েছিলেন। ১০৩ বছর বয়সে ২০১৮ সালে ইস্ট এন্ড এর এই হিরো দেহত্যাগ করেন।

টাওয়ার হ্যামলেটসের মেয়র জন বিগস বলেন, আমি আনন্দিত যে, আমরা এই নতুন কাউন্সিল ফ্ল্যাটগুলো নির্মাণ করতে সক্ষম হচ্ছি, যা আমাদের হাউজিং ওয়েটিং তালিকায় থাকা লোকদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি যাদের দরকার, তাদের আবাসনের সংস্থান করবে। আবাসন সংকটের কারণে যারা সবচেয়ে বেশি ভুগছেন, তাদেরকে সহায়তায় আমরা ২০০০ বাড়ি নির্মাণের যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম, তারই অংশ হিসেবে এগুলো নির্মাণ হচ্ছে।

তিনি বলেন, এই ফ্ল্যাটগুলোতে যারা আসবেন, তাদের জীবনে এগুলোর বৈশিষ্ট্য রূপান্তরকৃত প্রভাব ফেলবে। এছাড়া ম্যাক্স লেভিটাসের স্মৃতি প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর সেরা উপায় হচ্ছে এটি।

লেভিটাস হাউসের ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পালন করবে টাওয়ার হ্যামলেটস হোমস। এই ভবনে বড় পরিবারগুলোর জন্য উপযুক্ত ফ্ল্যাট রয়েছে এবং প্রতিটি ফ্ল্যাটের রয়েছে নিজস্ব আউটডোর স্পেস। ডিজেবিলিটি রয়েছে এমন পরিবারের জন্য  ডিজাইন করা হয়েছে দু’টি ফ্ল্যাট, যার রয়েছে হুইলচেয়ার চলাচল উপযোগী প্রশস্ত হলওয়ে, বিশেষায়িত শাওয়ার ও নিরাপত্তামূলক সুবিধা। এটি হচ্ছে কাউন্সিলের বিশেষ উদ্যোগ ‘প্রকল্প ১২০’ এর একটি অংশ। কাউন্সিলের নতুন বাড়ি-ঘরের ১০ শতাংশ যাতে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন লোকদের উপযোগী করে নির্মাণ করা হয়, তা নিশ্চিত করতে স্থপতি ও পেশাদার স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের একত্রিত করা হয়েছে।
এই ভবনে বসবাসকারী বাচ্চাদের খেলাধূলার জন্য রয়েছে বড় আকারের প্লে এরিয়া, যেখানে থাকবে ক্লাইম্বিং ফ্রেম, সুইংস, সীসো, ট্রাম্পোলাইনস এবং উন্মুক্ত স্থান। 

কাউন্সিলের ভাড়া প্রদান নীতি অনুযায়ী, ২৫ শতাংশ নতুন ঘর নিকটবর্তী নেইবারহুডের বাসিন্দা যারা হাউজিং তালিকায় অপেক্ষমান রয়েছেন, তাদের মধ্যে বরাদ্দ করা হবে।

ডেপুটি মেয়র এবং কেবিনেট মেম্বার ফর হাউজিং, কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম বলেন, টাওয়ার হ্যামলেটস হচ্ছে লন্ডনের মধ্যে অন্যতম ঘন বসতির জনপদ, যেখানে নতুন বাড়ি-ঘর নির্মাণের উপযোগী জায়গার অভাব রয়েছে। এধরনের পরিত্যক্ত গাড়ি পাকিং স্পেস খুঁজে বের করে আবাসিক ভবন নির্মাণের উদ্ভাবনী উদ্যোগ নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

তিনি বলেন, যখন বিদ্যমান এস্টেটের মধ্যখানে নতুন করে বাড়ি-ঘর নির্মাণের উদ্যোগ আমরা নেই, তখন এটা নিশ্চিত করা গুরুত্বপূর্ণ যে, নতুন নির্মাণ যাতে এলাকার পারিপার্শ্বিকতাকে আরো উজ্জল করে। লেভিটাস হাউসে বৃহত্তর কমিউনিটির জন্য আমরা চমৎকার প্লে এরিয়া গড়ে তুলেছি। আমি নিশ্চিত, নতুন বাসিন্দাদের সাথে সাথে পুরনো বাসিন্দারাও এই অবকাঠামোগত সুবিধাদি উপভোগ করবেন।


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর