শিরোনাম
প্রকাশ : ১৯ এপ্রিল, ২০২১ ১১:১৮
আপডেট : ১৯ এপ্রিল, ২০২১ ১১:২১
প্রিন্ট করুন printer

এবার রমজানে আনন্দে নেই প্রবাসীরা!

কাতার প্রতিনিধি

এবার রমজানে আনন্দে নেই প্রবাসীরা!
Google News

কাতারে পবিত্র রমজান উপলক্ষে বাংলাদেশ কমিউনিটিরসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও অঞ্চল ভিক্তিক সংগঠনগুলোর করোনাকালে কোনো ইফতার পার্টির অনুমতি না থাকায় ক্ষতির মুখে পড়েছে বাংলাদেশি মালিকানাধীন রেস্টুরেন্টগুলো।

রমজান মাসকে কেন্দ্র করে বড় বড় স্থাপনা ও রাস্তা ঘাটগুলো সাজানো হয় নতুন রুপে। করোনা পরিস্থিতির কারণে বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকাগুলোতে ইফতার সামগ্রী কিনতে রেস্টুরেন্ট গুলোতে শুরু পার্সেল সার্ভিস ব্যতীত হোটেলে বসে ইফতার না করার কারণে সবচেয়ে বেশি আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন ব্যবসায়ীরা।

অন্যদিকে, ক্রেতারা যাতে কম মূল্যে খাদ্যদ্রব্য কিনতে পারেন সেজন্য দেশটির বড় বড় সুপার মার্কেট গুলোর সাথে আলোচনার মাধ্যমে ৬৮০টি পণ্যের মূল্য কমিয়েছে কাতার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে চাল, ডাল, দুধ, আটা, চিনি, তেল, খেজুর, মুরগির মাংস, ম্যাকারনিসহ অন্যান্য নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী। 

বাংলাদেশি হৈচৈ রেস্টুরেন্টের সত্ত্বাধিকারী মো. শাখাওয়াত খান জানান, 'করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির আগে রমজান মাসব্যাপী ২০ থেকে ২৫ টি ইফতার পার্টি অনুষ্ঠিত হত। করোনা পরিস্থিতির কারণে গতবছর থেকে সবচেয়ে ক্ষতির মুখে পড়েছে হোটেল সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা। সরকারি নিষেধাজ্ঞা থাকায় রেস্টুরেন্টগুলো পার্সেল ব্যতীত বসে সরাসরি খাবার পরিবেশন না করতে পারায় হিমশিম খেতে হচ্ছে ব্যবসায়ীদের। তাই কাতার সরকারের প্রণোদনার সহায়তা পেলে কিছুটা হলেও লোকসানের পরিমাণ কম হত বলে জানান এই ব্যবসায়ী।'

এছাড়াও, বাংলাদেশ কমিউনিটির সভাপতি প্রকৌশলী আনোয়ার হোসেন আকন জানান, 'বছর ব্যাপী করোনা সংক্রমণ রোধে প্রবাসীদের মাঝে বিভিন্ন সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। তাছাড়া করোনা মহামারিতে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হওয়ার ফলে অন্যান্য বছরের মত এবার বাড়তি আনন্দ নেই প্রবাসীদের।'

 

বিডি প্রতিদিন / অন্তরা কবির 

এই বিভাগের আরও খবর