শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১২ জুন, ২০১৭ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ জুন, ২০১৭ ২৩:১১

টেলরকে ফিরিয়ে উজ্জীবিত তাসকিন

ক্রীড়া ডেস্ক

টেলরকে ফিরিয়ে উজ্জীবিত তাসকিন

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের অবিস্মরণীয় জয় নিয়ে ক্রিকেট বিশ্বে এখনো আলোচনা চলছে। প্রশংসিত হচ্ছে টাইগাররা। অনেক ক্রিকেট বিশ্লেষকের মতে, ক্রিকেট ইতিহাসে বাংলাদেশের এটিই সেরা জয়। হারলেই বিদায়, সেখানে কিনা অবিশ্বাস্য জয় নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে প্রথমবার সেমিফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে। ১৫ জুন এজবাস্টনে প্রতিপক্ষ কে হবে টাইগাররা এখন সেই অপেক্ষায়।

এমন ম্যাচ জিতে নতুনভাবে আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছে বাংলাদেশ। ২০০৫ সালে অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর নায়ক ছিলেন। টেস্টে বাংলাদেশের সর্বকনিষ্ঠ সেঞ্চুরিয়ান মোহাম্মদ আশরাফুল। এবার জয়ের নায়ক একা নন কেউ। সাকিব আল হাসান ও মাহমুদুল্লাহর রেকর্ডময় জুটি বাংলাদেশকে অবিশ্বাস্য জয় এনে দিয়েছে। বাংলাদেশের ক্রিকেটে জোড়া সেঞ্চুরিয়ানদের নাম স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

এমন জয়ে বোলারদের অবদান আবার খাটো করে দেখার উপায় নেই। শুরুতে নিউজিল্যান্ড যেভাবে ব্যাট করছিল তাতে মনে হচ্ছিল টার্গেট ৩০০ ছাড়িয়ে যাবে। শেষের দিকে বোলাররা জ্বলে উঠলে নির্ধারিত ৫০ ওভারে নিউজিল্যান্ডের ইনিংস থেমে যায় ২৬৫ রানে। মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের কথা না বললেই নয়। তিন ওভারে মাত্র ১৩ রান দিয়ে প্রতিপক্ষদের মূল্যবান তিনটি উইকেট দখল করেন। গতিমানব তাসকিনও কম যাননি। প্রস্তুতি ম্যাচে তার দুর্বল বোলিং ক্রিকেট প্রেমিকদের অবাক করে দেয়। মনে হচ্ছিল চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে সেরা একাদশে জায়গা হবে না তার। একজন পেসার বাড়ানোর লক্ষ্যে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তাসকিনকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। নেমেই সফল; ৮ ওভারে ৪৩ রানে ২ উইকেট পান। লুক রনকি ও রস টেলরের উইকেট পান তিনি। তাসকিন বললেন, এমন পারফরম্যান্সে অবশ্যই খুশি। সবচেয়ে বড় কথা আমরা সেমিফাইনালে গেছি। আর দুই ম্যাচ জিতলেই স্বপ্নের ট্রফি হাতে তুলতে পারব। এই অপেক্ষা আমার কেন ১৬ কোটি মানুষের। তাসকিন বললেন, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে কিছু করে দেখাতে হবে এ প্রতিজ্ঞা নিয়ে মাঠে নেমেছিলাম। হয়তো অনেকে বিশ্বাস করবেন না আমার চোখ ছিল রস টেলরের দিকেই। ও ডেঞ্জারম্যান টিকে থাকলে অনেক রান করবে। সার্থক হয়েছি ৬৩ রানেই ওকে ফেরাতে পেরেছি। এ জন্য অবশ্যই মুস্তাফিজকে ধন্যবাদ জানান, ও অসাধারণ ক্যাচ নিয়েছে। তাসকিন বলেন, সেমিতে খেলার সুযোগ পেলে আরও জ্বলে ওঠার চেষ্টা করব।  


আপনার মন্তব্য