শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:৪৮

সবার ওপরে

ক্রীড়া প্রতিবেদক

সবার ওপরে

স্যার ডোনাল্ড ব্রাডম্যান, জ্যাক হবস, ডব্লিউ জি গ্রেস, ওয়ালি হ্যামন্ডরা সবাই বিশ্ববিখ্যাত ক্রিকেটার। ক্রিকেটকে পাল্টে দিতে এসব গ্রেট ক্রিকেটারের জুড়ি মেলা ভার। কিন্তু আধুনিক ক্রিকেটের গতিপথ পাল্টে দেওয়ার ‘নায়ক’ হিসেবে এসব গ্রেটদের নাম বলেননি পাকিস্তানের কিংবদন্তির ক্রিকেটার ইনজামাম উল হক। বলেছেন, স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস, সনৎ জয়সুরিয়া ও এবি ডি ভিলিয়ার্সের নাম। এদের হাত ধরেই আধুনিক ক্রিকেট আমূল পাল্টে গেছে। এসব গ্রেট ক্রিকেটারদের মতো ক্রিকেটে হয়তো বিশাল অবদান রাখেননি মুশফিকুর রহিম। কিন্তু টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশকে আলাদা উচ্চতায় এবং পরিচিত করতে মুশফিক এক এবং অদ্বিতীয়! টেস্ট ক্রিকেট যে ধৈর্যের খেলা, মুশফিকের ব্যাটিং দেখলেই সেটা পরিষ্কার। গতকাল মিরপুরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২০৩ রানের হার না মানা যে ইনিংসটি খেলেছেন, সেটা মুশফিককে নিয়ে গেছে অনন্য উচ্চতায়। টেস্ট ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত ৫টি ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন টাইগার ক্রিকেটাররা, তার তিনটিরই মালিক মুশফিক। বাকি দুটি সাকিব ও তামিমের। টেস্ট ক্রিকেটে তামিম ছাড়িয়ে মুশফিক এখন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। ৭০ টেস্টে তার ৪৪১৩। তামিমের রান ৪৪০৫।

১৫ বছর আগে ২০০৫ সালে লর্ডসে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেক মুশফিকের। হোগার্ড, হারমিশন, ফ্লিনটপ, জনসনদের সুইং, গতি ও বাউন্সে যখন গোটা দল বিপর্যস্ত, তখন ৬ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ৮৫ মিনিট টিকেছিলেন ক্রিজে। যদিও রান করেছিলেন ১৯। কিন্তু সেদিন যে দৃঢ়তা দেখিয়েছিলেন, তখনই স্পষ্ট হয়েছিল ভবিষ্যতে টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশকে আলাদা উচ্চতায় নিয়ে যাবেন তিনি। অভিষেকের পর গত ১৫ বছরে মুশফিক টেস্ট খেলেছেন ৭০টি। রান করেছেন ৩৬.৭৭ গড়ে ৪৪১৩। সেঞ্চুরি ৭টি। তিনটিই ডাবল সেঞ্চুরি। শুধু হিমালয়সম মানসিক দৃঢ়তায় অধিকারীই নন, ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে পরিশ্রমী ক্রিকেটারদের একজন মুশফিকও। সাফল্য পেতে পরিশ্রমের বিকল্প পথে কখনো হাঁটেননি ‘মি. টেকনিক্যাল’ মুশফিক। পরিশ্রমকে মূল অস্ত্র ধরেই সবাইকে বলেন, ‘সময়কে সঠিকভাবে কাজে লাগাও। আর পরিশ্রম করে যাও। সাফল্যের সহজ কোনো পথ নেই।’ গত দুই দশকে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন ৫টি। তিনটিই করেছেন মুশফিক। প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির বিরল কীর্তি তার হাত ধরেই এসেছে। গলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২০০, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২১৯* ও গতকাল খেলেন ২০৩ রানের অপরাজিত ইনিংস।   


আপনার মন্তব্য