শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৩ মে, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ মে, ২০২০ ২৩:৪১

মাঠে ফিরেছে ক্রিকেট

ক্রীড়া প্রতিবেদক

মাঠে ফিরেছে ক্রিকেট
করোনাভীতিকে পাশ কাটিয়ে মাঠে ফিরেছে ক্রিকেট। লন্ডনের হিথরো বিমানবন্দরের পাশে দুই ইংলিশ ক্রিকেটার অনুশীলন করছেন -এএফপি

জুলাইয়ে বাংলাদেশকে দুই টেস্ট সিরিজের আতিথেয়তা দিতে চেয়েছিল শ্রীলঙ্কা। কিন্তু বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সম্মত হয়নি। স্পষ্ট করেই জানিয়ে দিয়েছে, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ভয়াবহ অবস্থায় রয়েছে, ফলে ক্রিকেটারদের সিরিজ খেলতে পাঠানো সম্ভব নয়। শুধু বাংলাদেশ নয়, সারা বিশ্বেরই একই অবস্থা। যদিও জার্মানিতে ফুটবল লিগ শুরু হয়েছে। শুরুর প্রস্তুতি নিচ্ছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ, ইতালির সিরি-এ, স্পেনের লা-লিগা। ইউরোপের করোনা পরিস্থিতি এখন আগের মতো নয়। তাই দেশগুলো চাইছে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে। ইংল্যান্ড সরকারও চাইছে ধাপে ধাপে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে। দেশটির সরকার অনুমতি দিয়েছে ক্রিকেট মাঠে ফেরানোর। সরকারি নির্দেশ মেনেই ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) অনুশীলনের বিশেষ অনুমতি দিয়েছে। ইসিবির অভিনব পরিকল্পনায় ১৮ জন পেসার ভিন্ন ভিন্ন সাতটি স্টেডিয়ামে অনুশীলন করবে। বৃহস্পতিবার স্টুয়ার্ট ব্রড ও ক্রিস ওক্স অনুশীলন করেছেন। জনবিচ্ছিন্নভাবে অনুশীলনের অনুমতি থাকায় কোনো ধরনের ছবি পাওয়া যায়নি। তবে দুই ক্রিকেটার নিজেদের করা ভিডিও আপলোড করায় অনুশীলনের বিষয়টি নিশ্চিত হয়। দুই ইংলিশ ক্রিকেটারের অনুশীলনের ফলে আড়াই মাস লকডাউনের পর মাঠে ফিরল ক্রিকেট। বোলারদের অনুশীলন ঠিকঠাক চললে দুই সপ্তাহ পর অনুশীলনে ফিরবেন ব্যাটসম্যানরা।

মরণঘাতী করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত জনজীবন। বন্ধ খেলাধুলা। ঘরবন্দী খেলোয়াড়রা। তার পরও বসে নেই তারা। ফিজিওর নিয়ম মেনে অনুশীলন করছেন। মাঠের লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত করছেন নিজেদের। কভিড-১৯ ভাইরাসের জন্য বন্ধ হয়ে গেছে নানা টুর্নামেন্ট, আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। স্থগিত হতে পারে টি-২০ বিশ্বকাপও। এমন জটিল পরিস্থিতিতেও ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড মাঠে ফেরানোর পরিকল্পনা করেছে ক্রিকেটকে। তারই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার অনুশীলন করেছেন দুই পেসার ব্রড ও ওক্স। দুজনই অনুশীলন করেছেন সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে। ব্রড অনুশীলন করেছেন নটিংহ্যামের ট্রেন্ট ব্রিজে আর ওক্স বার্মিংহামের এজবাস্টন স্টেডিয়ামে। অনুশীলনের বিষয়টি স্কাই স্পোর্টসকে নিশ্চিত করেছেন ওক্স। করোনাভাইরাসে ইংল্যান্ডের অবস্থা ভয়াবহ। আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৫০ হাজার ৯০৮ এবং মৃত ৩৬ হাজার ৪২।

অনুশীলনে সংবাদমাধ্যমের প্রবেশাধিকারের অনুমতি দেওয়া হয়নি। তাই ছবিও পাওয়া যায়নি। দুই ক্রিকেটার নিজেরাই ভিডিও করেছেন অনুশীলনের। সেগুলোই ভরসা। ব্রড তার ভিডিও আপ করেছেন। ট্রেন্ট ব্রিজের সেন্টার উইকেটে নিজের বোলিংয়ের ভিডিওটি শেয়ার করেছেন তিনি। অনুশীলনে নামার আগে একটি ডিজিটাল থারমোমিটার দিয়ে অবশ্য নিজের দেহের তাপমাত্রা মাপেন ব্রড। ৩৬.৬ সে. তাপমাত্রার ছবিটি আপও করেছেন। ‘আমি সুস্থ আছি’ বলেই ঘর থেকে বের হন তিনি। সঙ্গে নেন স্যানিটাইজ করা নিজের ট্রেনিং কিটস। এরপর ট্রেন্ট ব্রিজ মাঠে যান। সেখানে তার জন্য আলাদা কার পার্কিং স্পেস ছিল। শুধু ব্রড নন, প্রত্যেক ক্রিকেটারের জন্যই আলাদা স্পেস ঠিক করে রেখেছে ইসিবি। বোলাররা অনুশীলন করেছেন নির্দিষ্ট বল দিয়ে; যা সরবরাহ করেছে ইসিবি এবং সেসব বল দিয়েই ব্রড ট্রেন্ট ব্রিজের সেন্টার উইকেটে বোলিং করেছেন। এ সময় অনুশীলন মাঠে একজন ফিজিওথেরাপিস্ট ছিলেন দেখাশোনার জন্য। নিজের বোলিং শেয়ার করে ব্রড লিখেছেন, ‘মাঠে অনুশীলন বাস্তবে রূপ দিতে কত কিছু করতে হয়েছে। সেসব আড়ালেই রয়ে গেছে। এমন একটি অনুশীলনের জন্য ইসিবি ও ট্রেন্ট ব্রিজ মাঠের সবাইকে ধন্যবাদ। আমি সত্যিই এটাকে সাধুবাদ জানাই। মাঠে ফিরে বোলিং করতে পারার অনুভূতি অতুলনীয়।’ ব্রড ও ওক্সের অনুশীলন নিঃসন্দেহে সাহস জোগাবে অন্য দেশগুলোকে। করোনাভাইরাস-ভীতি পাশ কাটিয়ে অচিরেই হয়তো অন্য দেশগুলো অনুশীলন করার প্রস্তুতি নেবে। অনুশীলন করবে জনবিচ্ছিন্ন থেকে।


আপনার মন্তব্য