শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৯ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ মার্চ, ২০২১ ২৩:২১

টাইগারদের সম্ভাবনা দেখছেন ডমিঙ্গো

‘বাংলাদেশ দল আগে যা করতে পারেনি, সেটাই করে দেখানোর সুযোগ রয়েছে আমাদের সামনে। বাংলাদেশ দলের সঙ্গে নিউজিল্যান্ডে এটাই আমার প্রথম সফর।’

ক্রীড়া প্রতিবেদক

টাইগারদের সম্ভাবনা দেখছেন ডমিঙ্গো

দুই যুগ ধরে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ক্রিকেট খেলছে বাংলাদেশ। টেস্ট, ওয়ানডে এবং টি-২০-তিন ফরম্যাটের ক্রিকেট খেললেও এখন পর্যন্ত দেশটির মাটিতে দেশটিকে হারাতে পারেনি। কিন্তু এবার স্বপ্ন দেখছেন তামিম ইকবাল। গতকাল ডানেডিন থেকে মিডিয়ার মুখোমুখিতে টাইগার হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গোও অধিনায়কের সুরে কথা বলেছেন। ২০, ২৩ ও ২৬ মার্চ তিনটি ওয়ানডেতে জয়ের সম্ভাবনা দেখছেন টাইগার কোচ।

আগামীকাল বাংলাদেশ সময় ভোর ৪টায় ওয়ানডে খেলতে নামবেন তামিমরা। হ্যামস্ট্রিংয়ে সামান্য টান থাকায় প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেননি টাইগার ওয়ানডে অধিনায়ক। তবে প্রথম ওয়ানডে খেলার সম্ভাবনা উজ্জ্বল। হাঁটুর ইনজুরির জন্য প্রথম ওয়ানডে মিস করবেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। ব্যক্তিগত কাজে আগেই সিরিজ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন সাকিব আল হাসান। ফলে কিছুটা শক্তি কম নিয়েই খেলবেন তামিম বাহিনী। অবশ্য বাড়তি পাওনা হিসেবে প্রতিপক্ষ হিসেবে পাচ্ছে না দুই তারকা ক্রিকেটার কেন উইলিয়ামসন ও রস টেইলরকে। এই সুবিধাটুকু টাইগারদের বাড়তি সহায়তা দিবে কোনো সন্দেহ নেই। গতকাল পরিবেশ, পরিস্থিতি বিবেচনা করেই টাইগার কোচ ডমিঙ্গো সাফল্যের একটি সম্ভাবনার কথা বলেন মিডিয়ায়, ‘বাংলাদেশ দল আগে যা করতে পারেনি, সেটাই করে দেখানোর সুযোগ রয়েছে আমাদের সামনে। বাংলাদেশ দলের সঙ্গে নিউজিল্যান্ডে এটাই আমার প্রথম সফর। এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে এসেছি। এখানে সফর খুব কঠিন। আমি মনে করি তরুণদের জন্য এটা দারুণ সুযোগ। সামনেই ভারতের মাটিতে বিশ্বকাপ (টি-২০ বিশ্বকাপ)। নিউজিল্যান্ড বিশ্বের অন্যতম সেরা দল। ভারতে ভালো করতে চাইলে এমন সব সিরিজেই ভালো খেলতে হয়।’

ডানেডিনে একটু ছোট আকৃতির স্টেডিয়াম। সীমানা বাউন্ডারি ৬৫ মিটার। উইকেটে সামান্য ঘাস রয়েছে। তারপরও সকালের ময়েশ্চারে পেসাররা বাড়তি সুবিধা পেয়ে থাকে। এটা মাথায় রেখেছেন টাইগার কোচ, ‘এখানকার ঘরোয়া ক্রিকেটের খোঁজখবর রাখি। এ মাঠে গড় স্কোর সম্ভবত ৩০৭ রান। বাউন্ডারি সীমানা কিছু দিকে ছোট, ৬৫ মিটারের মতো। আমরা রান আশা করছি।’ তারপরও কোচ আস্থা রেখেছেন তরুণ পেসারদের উপর, ‘টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-২০-তিন সংস্করণের মধ্যে ওয়ানডেতে আমরা সবচেয়ে শক্তিশালী। আমাদের কিছু পেসার আছে, যারা এর আগে কখনোই নিউজিল্যান্ডে খেলেনি। হাসান মাহমুদ ও তাসকিন আহমেদদের মতো পেসারদের প্রতিভা রয়েছে। ফাস্ট বোলারদের কাছ থেকে আমরা ভালো কিছ্ইু আশা করছি।’