শিরোনাম
শুক্রবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ টা
মোহামেডানের ওয়াকওভার

আবাহনী-মেরিনার্স ফাইনাল

ক্রীড়া প্রতিবেদক

আবাহনী-মেরিনার্স ফাইনাল

সাড়ে তিন বছর পর ঘরোয়া হকি মাঠে ফিরেছে। সবাই স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে। এরই মধ্যে আবার নতুন করে শঙ্কা তৈরি হয়েছে। গতকাল ক্লাব কাপের সেমিফাইনালে ঢাকা আবাহনী ৬-০ গোলে সোনালী ব্যাংককে হারিয়ে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে। তবে মোহামেডান ও মেরিনার্সের আরেক সেমিফাইনাল মাঠেই গড়ায়নি। ইতিহাসে লজ্জাকর ঘটনা ঘটিয়েছে ঐতিহ্যবাহী ঢাকা মোহামেডান। তারা মেরিনার্সকে ওয়াকওভার দিয়েছে। না খেলেই মেরিনার্স আগামীকাল শিরোপা লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে আবাহনীর বিপক্ষে।

মোহামেডানের ইতিহাসে কোনো খেলায় সেমিফাইনালে প্রতিপক্ষকে ওয়াকওভার দেওয়ার নজির নেই। শক্তিশালী দল গড়ার পরও এমনটি করল কেন? এ ব্যাপারে হকি দলের ম্যানেজার আরিফুল হক প্রিন্স বলেন, প্রতিবাদে আমরা সেমিফাইনাল বয়কট করেছি। পুলিশের বিপক্ষে আম্পায়ারের রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করে মোহামেডানের অধিনায়ক রাসেল মাহমুদ জিমিকে সেমিফাইনালে নিষিদ্ধ করা হয়। যা ছিল অবৈধ ও বাইলজকে বৃদ্ধাঙ্গালী দেখানো। জিমি যদি সেদিন নিষিদ্ধ হওয়ার মতো অপরাধ করে থাকে তাহলে তাকে লালকার্ড দেখানো হলো না কেন?

প্রিন্স ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, মাঠে কার্ড দেখানো হলো না। অথচ টেবিলে বসে শাস্তি দিল একে কি আমরা ষড়যন্ত্র বলতে পারি না? বাইলজে আছে কাউকে নিষিদ্ধ করলে আম্পায়ারের রিপোর্ট, জাজ ও ডিসিপ্লিন কমিটির অনুমতি লাগে। সেখানে তা না করে হুট করে জিমিকে নিষিদ্ধ করল। দেখেন আমরা ক্লাব কাপ সেমিফাইনাল বয়কট করেছি। নিরপেক্ষ ভূমিকা না দেখলে আমরা লিগ খেলব কিনা নিশ্চয়তা দিতে পারছি না।

এই রকম আরও টপিক

সর্বশেষ খবর