Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ এপ্রিল, ২০১৯ ২৩:২৭

হাসপাতালের সামনেই আবর্জনা!

রেজা মুজাম্মেল, চট্টগ্রাম

হাসপাতালের সামনেই আবর্জনা!

চট্টগ্রাম নগর ভবনের অদূরেই অবস্থিত জেনারেল হাসপাতাল। হাসপাতালের জরুরি বিভাগটি সড়কের সঙ্গেই লাগোয়া। কিন্তু এই জরুরি বিভাগের প্রবেশপথে এবং পাশেই প্রতিনিয়ত ফেলা হয় নানা প্রকারের বর্জ্য। ছড়িয়ে থাকা এসব আবর্জনা থেকে ছড়ায় দুর্গন্ধ। ফলে রোগী, স্বজন ও পথচারীদের চলতে হয় নাক চেপে ধরে। তবে স্বাস্থ্য সেবাদানকারী একটি প্রতিষ্ঠানের সামনের সড়ককে এভাবে আবর্জনার ভাগাড় বানিয়ে ফেলার বিষয়টি রোগী, স্বজনসহ সবার কাছেই চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। কেন একটি সেবা প্রতিষ্ঠানের সামনে এভাবে আবর্জনা ফেলার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। পক্ষান্তরে, স্থানীয়দেরও সচেতন, সতর্ক ও দায়িত্ববান হওয়া উচিত বলে মনে করছে চসিক। যারা এভাবে হাসপাতালের সামনে আবর্জনা ফেলছে তারা কেমন মানসিকতার মানুষ।

হাসপাতালে আসা রোগী উম্মে লুসি বলেন, ‘একটি সরকারি হাসপাতালের সামনে এভাবে আবর্জনা পড়ে থাকার বিষয়টি কোনোমতেই আমার বুঝে আসে না। মানুষ হাসপাতালে আসেন চিকিৎসা নিতে। কিন্তু এখানে চিকিৎসার সঙ্গে সঙ্গে অতিরিক্ত হিসেবে দুর্গন্ধও পেতে হচ্ছে রোগীদের। যারা এখানে আবর্জনা ফেলছে, তারা কেমন মানুষ সেটিও ভাবার বিষয়। তবে এ জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং সিটি করপোরেশন- দুই সংস্থাকেই কার্যকর ভূমিকা পালন করতে হবে।’

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. অসীম কুমারনাথ বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমরা সিটি করপোরেশনকে লিখিত এবং স্থানীয় কাউন্সিলরকে মৌখিকভাবে জানিয়েছি। কিন্তু এখনো এর কোনো সমাধান হয়নি। কয়েকদিন আগেও আবর্জনা দেখেছি।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের কোনো নিরাপত্তাকর্মী নেই। তাই আবর্জনা ফেললে বাধা দেওয়া যাচ্ছে না। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে সিটি করপোরেশনকে অবহিত করেছি।’

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শফিকুল মান্নান সিদ্দিকী বলেন, ‘হাসপাতালের সামনে এখন কোনো ডাস্টবিন নেই। হয়তো সড়কে আবর্জনা ফেলছে। তবে কেউ যদি সড়কের পাশে আবর্জনা ফেলে তাহলে তো করার কিছুই নেই। আর যারা ফেলবে, তারা কেনইবা সড়কের পাশে এবং হাসপাতালের সামনে আবর্জনা ফেলবে? সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, হাসপাতালের জরুরি বিভাগে প্রবেশপথেই ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে নানা প্রকারের বর্জ্য। এসব বর্জ্য থেকে ছড়াচ্ছে উৎকট দুর্গন্ধ। সম্প্রতি রাতে গিয়ে দেখা যায়, আখের উচ্ছিষ্টাংশ ফেলছেন এক বিক্রেতা। বিভিন্ন প্রকারের বর্জ্য ফুটপাথ হয়ে ছড়িয়ে পড়ছে সড়কে। ফলে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগী ও সঙ্গে থাকা স্বজনদের আবর্জনা মাড়িয়েই প্রবেশ করতে হচ্ছে। পোহাতে হয় দুর্ভোগ ও ভোগান্তি।


আপনার মন্তব্য