শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২২:০৩

‘ধূমপানমুক্ত বাড়ি’

মহিউদ্দিন মোল্লা, কুমিল্লা

‘ধূমপানমুক্ত বাড়ি’

কুমিল্লা নগরীতে ‘ধূমপানমুক্ত বাড়ি’ সবার নজর কেড়েছে। মূলত বাড়ির নাম ‘রহমান ভিলা’। ফলকে রহমান ভিলার নিচে ব্র্যাকেটে লেখা ‘ ধূমপানমুক্ত বাড়ি’। এই বাড়িতে ৬০ জনের ওপর সদস্যের বসবাস। বাড়িটির অবস্থান নগরীর কাপ্তান বাজার জাহান নগর এলাকায়। ৩০ বছর ধরে বাড়ির সদস্যদের কেউ ধূমপান করেন না। সঙ্গে তারা মাদককেও না বলেছেন। পারিবারিকভাবে ইভ টিজিংসহ সামাজিক অনাচারগুলো থেকে পরিবারের সদস্যদের দূরে রাখার চেষ্টা করেছেন এই বাড়ির মালিক প্রয়াত খলিলুর রহমান। তার ছয় ছেলে। হাবিবুর রহমান, রফিজুর রহমান, জামিলুর রহমান, আবদুর রহমান, আনিসুর রহমান ও আফতাবুর রহমান। সবাই চাকরি ও ব্যবসায় জড়িত। তাদের নাতি-পুতি হয়ে গেলেও সবাই যৌথ পরিবারে বসবাস করেন। সবার বড় হাবিবুর রহমান। তিনি সিটি মেয়রের সাবেক ব্যক্তিগত সহকারী। তিনি প্রথম বাড়িকে ধূমপানমুক্ত করার এই উদ্যোগ নেন। তিনি বলেন, ‘তার এক চাচা ধূমপান করতেন। তিনি তাকে বলেন, ধূমপান থেকে মানুষ এক সময় মাদক সেবনে চলে যায়। আপনাকে দেখে ছেলে- মেয়েরা সে পথে যেতে পারে। আপনি ধূমপান ছেড়ে দিলে ভালো হয়। চাচা কয়েকদিন পর জানালেন। তিনি ধূমপান ছেড়ে দিয়েছেন। তারপর তিনি বাড়িতে লাগিয়ে দেন ধূমপানমুক্ত বাড়ির ফলক।’ আরেক ভাই ডিসির সাবেক ব্যক্তিগত সহকারী জামিলুর রহমান বলেন, ‘তাদের পিতাও ডিসি অফিসে চাকরি করেছেন। তিনি শিখিয়েছেন হারামে আরাম নেই। পরিবারের সবাই একসঙ্গে থাকাতে অনেক আনন্দ। তারা দোকানে কখনো আড্ডা দেননি। নিজেদের আঙিনায় ভাইয়েরা মিলে খেলেছেন। তাদের ছেলে ও ভাতিজারা পারিবারিক সেই বন্ধন ধরে রেখেছেন। পারিবারিক কোনো অনুষ্ঠান তারা আনন্দের সঙ্গে উদ্যাপন করেন। একের বিপদে অন্যে এগিয়ে আসেন। ধূমপানসহ খারাপ কাজ থেকে বিরত থাকার কথা বলেন নতুন প্রজন্মকে। তাদের বাড়িতে কোনো মেহমান এলে ধূমপান করেন না। এমনকি এই বাড়িতে পান এবং তামাকপাতাও খাওয়া হয় না।’

আমরা ধূমপান নিবারণ করি (আধুনিক) সংগঠনের কুমিল্লার সভাপতি ডা. ইকবাল আনোয়ার বলেন, ‘ধূমপানমুক্ত বাড়ি’ একটি অনুপ্রেরণামূলক বিষয়। এটা দেখে অন্যরা ধূমপান ত্যাগে অনুপ্রেরণা পাবে। এতদিন ধূমপানবিরোধী কাজ করে এই বিষয়টি দেখে ভালো লাগছে। ধূমপান প্রতিরোধে প্রশাসনকে আরও কার্যকরী ভূমিকা নিতে হবে।’


আপনার মন্তব্য