শিরোনাম
প্রকাশ : ৩০ নভেম্বর, ২০২০ ০২:১৮
প্রিন্ট করুন printer

কিশোরীকে আটকে টানা ৮ দিন ধর্ষণ করলো প্রেমিক ও তার বন্ধুরা!

সিলেট ব্যুরো

কিশোরীকে আটকে টানা ৮ দিন ধর্ষণ করলো প্রেমিক ও তার বন্ধুরা!
প্রতীকী ছবি

সিলেটের শহরতলিতে এক কিশোরীকে আটকে কথিত প্রেমিক ও তার বন্ধুরা মিলে ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়াও পানির সঙ্গে মিশিয়ে গর্ভ নষ্ট করার ওষুধও খাওয়ানো হয় ওই কিশোরীকে। 

রবিবার এ ঘটনায় দুই যুবককে আটক ও কিশোরীকে উদ্ধার করেছে সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার সালুটিকর পুলিশ।

স্থানীয় ও পুলিশি সূত্রে জানা গেছে, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ২০ নভেম্বর রাতে গোয়াইনঘাট উপজেলার তোয়াকুল ইউনিয়নের পূর্ব-পেকেরখাল গ্রামের এক কিশোরীকে নিয়ে পালিয়ে যায় জাকির আহমেদ মুহসিন (২৪) নামে এক যুবক। ওইদিন রাত ১০টার দিকে কিশোরীর বাবা-মা তাদের মেয়েকে খোঁজে না পেয়ে পরবর্তীতে জানতে পারেন জাকির তাদের মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে গেছে। পরে ওই কিশোরীর পিতা জাকিরকে অভিযুক্ত করে গোয়াইনঘাট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

এ অভিযোগের ভিত্তিতে গোয়াইনঘাট সালুটিকর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মো. শফিক ইসলাম খান ওই কিশোরীকে উদ্ধার এবং জাকিরকে গ্রেফতারের জন্য গোয়াইনঘাট ও সিলেট সদর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে একাধিক অভিযান পরিচালনা করেন। পরে রবিবার (২৯ নভেম্বর) সন্ধ্যার দিকে শাহপরাণ থানাধীন সিলেট শহরতলির কল্লোগ্রাম এলাকা থেকে ওই কিশোরী উদ্ধার করে পুলিশ। এছাড়াও শাহপরাণ থানাধীন পীরের চক গ্রামের ফারুক আহমদের ছেলে মো. জাকির হোসেন ও চেরাগ আলীর ছেলে আলী হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে, নির্যাতিতা কিশোরী জানান, জাকিরের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ২০ নভেম্বর রাতে তার বাড়িতে হঠাৎ জাকির উপস্থিত হয়ে বলে তার সঙ্গে পালিয়ে যেতে। পালিয়ে না গেলে জাকির আত্মহত্যার হুমকি দেয়। পরে ওই কিশোরী ভয় পেয়ে কাউকে না বলে জাকিরের হাত ধরে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান।

কিশোরীকে নিয়ে ওইদিন রাতে চেঙ্গেরখাল নদীর পারে জাকির আরো ৪/৫ জন যুবকের সঙ্গে মিলিত হন। জাকির এ সময় এই যুবকদের বন্ধু বলে পরিচয় দেন কিশোরীর কাছে। কিন্তু ওই রাতেই কিশোরীর চোখ বেঁধে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে গিয়ে ওরা সবাই পালাক্রমে ধর্ষণ করে। গত ৮ দিনে ওরা সবাই একাধিকবার ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে। এছাড়াও কিশোরীর কথিত প্রেমিকও তার বন্ধুরা পানির সঙ্গে মিশিয়ে গর্ভ নষ্ট করার ওষুধ সেবন করান ওই কিশোরীকে।

এ ব্যাপারে সালুটিকর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, গোয়াইনঘাটের পূর্ব-পেকেরখাল গ্রামের ওই কিশোরীর পিতা গোয়াইনঘাট থানায় একটি অপহরণের অভিযোগ দায়ের করেন। গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুল আহাদ বিষয়টি তদন্তের জন্য জন্য আমাকে দায়িত্ব দেন। এরই আলোকে অভিযান চালিয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার ও অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুল আহাদ এ বিষয়ে বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ২০:৫২
প্রিন্ট করুন printer

সব সময় মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান দিয়ে যাবো: ইমরান আহমদ

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

সব সময় মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান দিয়ে যাবো: ইমরান আহমদ

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেছেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আওয়ামী লীগ সরকার উন্নয়ন ও জনকল্যাণে বিশ্বাসী। দেশের মানুষের মৌলিক চাহিদা পূরণে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। দরিদ্র সীমার নিচে বসবাসকারী জমি নেই, ঘর নেই এমন সব প্রায় লক্ষাধিক পরিবারকে ঘর তৈরি করে দিচ্ছে। মুক্তিযোদ্ধারা আমাদের জাতীয় জীবনের এক অনন্য প্রতীক। বিশ্বের মানচিত্রে বাংলাদেশ যতদিন বেঁচে থাকবে ততদিন মুক্তিযোদ্ধাগণকে সম্মান দিয়ে যাবে।

আজ রবিবার সকালে জৈন্তাপুর উপজেলা সদরে ৩ কোটি ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপনকালে এসব কথা বলেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কামাল আহমদ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. বশির উদ্দিন, সহকারী কমিশিনার (ভূমি) ফারুক আহমেদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) আব্দুল করিম, জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মহসীন আলী, জৈন্তাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এখলাছুর রহমান প্রমুখ।

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:৫৭
প্রিন্ট করুন printer

যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় সিলেটের এক ব্যক্তির মৃত্যু

সাইফুল ইসলাম বেগ, বিশ্বনাথ (সিলেট):

যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় সিলেটের এক ব্যক্তির মৃত্যু

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে প্রাণ হারিয়েছেন আরও এক বাংলাদেশি। তার নাম আশিক আলী (৬৮)। তার গ্রামের বাড়ি সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার দেওকলস ইউনিয়নের দেওকলস গ্রামে। 

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের ব্রকস শহরের বাসিন্দা আশিক আলীর কোভিড-১৯ প্রজেটিভ ধরা পড়ে গেল ৫ জানুয়ারি। শারিরীক অবস্থার অবনতি হলে স্থানীয় মাউন্ট সাইনাই হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। দীর্ঘ ২০ দিন চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় রবিবার ভোররাতে হাসপাতালে মারা যান তিনি। সোমবার স্থানীয় লোরাল গ্লোব সেমিটারীতে অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে। 

তার ছোট ছেলে সুহেল আহমদ জানান, ২০১০ সাথে মা-বাবা, ভাই-বোনসহ যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান বাবা। গেল ক’দিন পূর্বে হঠাৎ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হন তিনি। ভোররাতে হাসপাতালেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। দেশে থাকাকালীন সময়ে তিনি ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সে হিসেবে বাবাকে সবাই চিনতেন। বাবার রুহের মাগফিরাত কামনায় সকলের দোয়া কামনা করছি।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:১৪
প্রিন্ট করুন printer

বিশ্বনাথে গবাদি পশুকে বিনামূল্যে টিকা প্রদান

বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি

বিশ্বনাথে গবাদি পশুকে বিনামূল্যে টিকা প্রদান

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলায় গবাদি পশুকে বিনামূল্যে ক্ষুরারোগের টিকা প্রদান করা হয়েছে। রবিবার দুপুরে উপজেলার ময়নাগঞ্জবাজার, শেখ মহল, দশঘর, দেওকলস ও বাগিচাবাজারে এ টিকা প্রদান করা হয়।

উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে, প্রাণিসম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতালের ব্যবস্থাপনায় টিকা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নুনু মিয়া।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. আবদুশ শহিদের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দেওকলস ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) খায়রুল আমীন আজাদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক মো. সিরাজুল ইসলাম, দশঘর ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য তাজুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে ১৮৪টি গরু ও ২৫টি ছাগল-ভেড়াকে বিনামূল্যে ক্ষুরারোগের টিকা দেয়া হয়।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:৩৭
প্রিন্ট করুন printer

সিলেটে ১৫০ ‘গৃহহীন’ পরিবারের অবস্থান কর্মসূচি

আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে পুনর্বাসন দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

সিলেটে ১৫০ ‘গৃহহীন’ পরিবারের অবস্থান কর্মসূচি

মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে পুনর্বাসনের দাবি জানিয়ে সিলেটের জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে ১৫০ ‘ভূমিহীন ও গৃহহীন’ পরিবারের সদস্যরা।

রবিবার সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন শেষে জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম ববাবর স্মারকলিপি দেন তারা। স্মারকলিপিতে আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে সিলেটের ১৫০ ‘ভূমিহীন ও গৃহহীন’ পরিবারের পুনর্বাসনের আবেদন জানানো হয়।

স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, সিলেট সদর উপজেলার জালালাবাদ থানাধীন টুকেরবাজার ইউনিয়নের গৌরীপুর গ্রামের ১৫০ পরিবার সুরমা নদীর পাড় ভাঙনের ফলে এখন ভূমিহীন। বর্তমানে তারা ভূমিহীন ও গৃহহীন হয়ে সিলেট সুনামগঞ্জ সড়কের পাশে ছোট ছোট ঝুপড়ি ঘর বানিয়ে বসবাস করে আসছেন। এতে পরিবার পরিজন নিয়ে জীবন ধারণ করা দুর্বিসহ হয়ে পড়েছে।

স্মারকলিপিতে আরও উল্লেখ করা হয়, এসকল ভূমিহীনদের জন্য গৃহ বরাদ্দ চেয়ে ২০১৮ সালের ৭ ডিসেম্বর ও ২০১৯ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি জেলা প্রশাসক বরাবর দুদফা আবেদন করা হয়। এছাড়া একই বছরের ২৬ জুলাই পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের নিকটও আবেদন করেন তারা। পরে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সুপারিশসহ আবেদনটি জেলা প্রশাসকের বরাবরে জমা দেয়া হয়। 

প্রসঙ্গত, গত শনিবার বিশ্বের সর্ববৃহৎ আশ্রয়ণ প্রকল্পের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী। জাতির পিতার জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে এ প্রকল্পের আওতায় প্রথম পর্যায়ে প্রায় ৭০ হাজার পরিবার পাকা বাড়ি পেয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:০৯
প্রিন্ট করুন printer

এমসি কলেজে গণধর্ষণ: আদালতে আসেননি মামলার সাক্ষীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

এমসি কলেজে গণধর্ষণ: আদালতে আসেননি মামলার সাক্ষীরা

সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলার স্বাক্ষ্যগ্রহণের প্রথম দিনই আদালতে হাজির হননি কোনো স্বাক্ষী। স্বাক্ষীরা অনুপস্থিত থাকায় স্বাক্ষ্যগ্রহণের পরবর্তী তারিখ ২৭ জানুয়ারি ধার্য্য করেছেন আদালত। 

আজ রবিবার সকাল ১১টায় সিলেটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মোহিতুল হকের আদালতে এ তারিখ নির্ধারণ করা হয়। এসময় মামলার চার্জশিটভূক্ত ৮ আসামিকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। নারী ও  শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল পিপি রাশিদা সাঈদা খানম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, বাদিপক্ষের আইনজীবী একই আদালতে এক সাথে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ও চাঁদাবাজি মামলার বিচার কাজ শুরুর আবেদন করেন। কিন্তু বিচারক তা খারিজ করে দেন। 

এর আগে গত ১৭ জানুয়ারি মামলার অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচারকার্য শুরু হয়। আদালত আজ রবিবার প্রথম সাক্ষ্য গ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করেছিলেন আদালত। এর আগে গত ৩ ডিসেম্বর সিলেটের মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) আবুল কাশেমের আদালতে ৮ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র জমা দেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্য। এতে সাইফুর রহমানকে প্রধান করে ছয় জনের বিরুদ্ধে সরাসরি ধর্ষণে জড়িত থাকা এবং অপর দুই জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণে সহায়তার কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ২৫ সেপ্টেম্বর সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রবাসে স্বামীকে আটকে রেখে নববধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করা হয়। ঘটনার রাতেই নির্যাতিতার স্বামী বাদী হয়ে নগরের শাহপরান থানায় ৬ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেন।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর