Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২০ মার্চ, ২০১৯ ১৩:২২
আপডেট : ২০ মার্চ, ২০১৯ ১৪:৩৪

রাজশাহীতে দুইদিনে এক হাজার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী:

রাজশাহীতে দুইদিনে এক হাজার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

রেলের জমিতে অবৈধ স্থাপনা ও দখলদারদের উচ্ছেদে অভিযান শুরু করেছে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে। মঙ্গলবার সকাল থেকে রাজশাহীতে এই অভিযান শুরু করা হয়। কোর্ট স্টেশন এলাকা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত বিভিন্ন অবৈধ স্থাপনা বুলড্রোজার ও শ্রমিকের সহযোগিতায় ভেঙে দেওয়া হয়।

তবে বুধবার দ্বিতীয় দিনের অভিযানে ক্ষোভ প্রকাশ করেন স্থানীয়রা। নগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল আলম বেন্টুর একটি স্থাপনা না ভাঙায় ক্ষোভে সড়ক অবরোধ করেন স্থানীয়রা। পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নুরুজ্জামান জানান, ওই আওয়ামী লীগ নেতার স্থাপনার বৈধ ইজারা নেওয়া আছে। এ কারণে সেটি উচ্ছেদ করা হয়নি। 

সকাল থেকে উচ্ছেদ অভিযান শুরুর পর রেলের জাগায় বসবাস বা ব্যবসা পরিচালনা করে আসা অনেকেই পরিবার-পরিজন নিয়ে রাস্তায় অবস্থান নেয়। এসময় নগরীর কোর্ট স্টেশন, বহরমপুর মোড়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ অভিযান পরিচালনা করা এলাকা সমূহে প্রশাসনকে স্থানীয়দের বাধার সম্মুখীন হতে হয়। পরে পুলিশ তাদের ধাওয়া দিয়ে ছত্রভঙ করে।

রেলওয়ে থানার ওসি সাঈদ জানান, রেল কর্তৃপক্ষ তাদের জাগায় অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে। পুলিশ সহায়তা করছে। উচ্ছেদ অভিযান চলাকালে বস্তিতে বসবাসকারীরা রেল কর্তৃপক্ষকে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়। এসময় পুলিশ তাদের সরিয়ে দিয়েছে।

এদিকে স্থানীয় বাসিন্দা ইয়াহিয়া হোসেন অভিযোগ করে বলেন, ১৯৯৯ সালে কেনা প্রায় সাড়ে চার কাঠার ওপর নির্মিত দুইতলা দালান বাড়িটি মঙ্গলবার অভিযানের সময় চতুরদিক থেকে ভেঙে ফেলা হয়েছে। চারতলা ফাউন্ডেশনের এই বাড়িটি নির্মাণে রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্রয়োজনীয় অনুমতি নেওয়া রয়েছে। এসময় অভিযান পরিচালনাকারী সংশ্লিষ্টদেও প্রয়োজনীয় সব কাগজ দেখালেও তারা বাড়িটি ভেঙে ফেলে। 

এদিকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে কোন অনিয়ম করা হচ্ছে না উল্লেখ করে উচ্ছেদ অভিযান তত্ত্বাবধানকারী ও রেলের জিও পাকশী মো. ইউনুস আলী বলেন, স্থানীয় প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে মঙ্গলবার সকাল থেকে অবৈধ স্থাপনা সমূহে উচ্ছেদে অভিযান শুরু হয়েছে। গত দুইদিনে এক হাজারের বেশি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। 

পশ্চিমাঞ্চল রেলের ভূ-সম্পত্তি বিভাগের প্রধান আবদুল মান্নান বলেন, পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী মঙ্গলবার কোর্ট ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করা হয়েছে। দুই দিন এই উচ্ছেদ অভিযান চলার কথা আছে। তবে প্রয়োজনে এই উচ্ছেদ অভিযানের মেয়াদ বাড়ানো হবে।


বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য