শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ এপ্রিল, ২০২১ ২১:০৯
প্রিন্ট করুন printer

হত্যাকাণ্ডের দেড়মাস পর রহস্য উদঘাটন

মাদক বিক্রির পাওনা টাকা না দেয়ায় যুবককে খুন

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

মাদক বিক্রির পাওনা টাকা না দেয়ায় যুবককে খুন

ময়মনসিংহ নগরীর চর জেলখানা বেড়িবাঁধ থেকে দিদারুল ইসলাম রুবেল (৩০) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধারের দেড় মাস পর হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এ ঘটনায় সুমন মিয়া (২৫) ও মো. খোকন (২৫) নামে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

শুক্রবার বিকালে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন ডিবি ওসি শাহ কামাল আকন্দ। তারা দু’জনই হত্যাকাণ্ডের বর্ণনা দিয়ে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন বলেও জানান ওসি।

তিনি বলেন, গত ৩ মার্চ রাতে রুবেল নামে ওই যুবকের রক্তাক্ত লাশ উদ্ধারের পর ৪ মার্চ কোতোয়ালি মডেল থানার মামলা দায়ের হয়। এরপর ১৩ মার্চ হত্যার রহস্য উদঘাটনের জন্য মামলাটি জেলা গোয়েন্দা শাখায় ন্যস্ত করা হয়। পরে পুলিশ সুপারের দিক নির্দেশনায় তদন্ত কার্যক্রম শুরু করে ডিবি। 

ওসি আরও বলেন, দীর্ঘ তদন্তের পর অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে আসামি সুমন মিয়াকে ভালুকা উপজেলার ড্রাইভারপাড়া এলাকা থেকে এবং রাত সাড়ে ১০টার দিকে সদরের চরভবানীপুর কোনাপাড়া এলাকা থেকে আরেক আসামি খোকনকে গ্রেফতার করা হয়। 

জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে ডিবির ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, গ্রেফতারকৃত দুই আসামিই এ হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। তারা জানায়, নিহত রুবেলের কাছে মাদক বিক্রির টাকা পাওনা নিয়ে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে ছুরিকাঘাত করে তাকে হত্যা করে লাশ বেড়িবাঁধে ফেলে চলে যায় হত্যাকারীরা।

এ ঘটনায় শুক্রবার দুপুরে গ্রেফতারকৃত দুই আসামিকে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুল ইসলামের ১ নং আমলি আদালতে হাজির করা হয়। পরে তারা হত্যাকাণ্ডের বর্ণনা দিয়ে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে বলেও জানান ওসি।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন