Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১৩ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ মে, ২০১৯ ২৩:৫৯

কে এই দালাল এনামুল হক

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

কে এই দালাল এনামুল হক
এনামুল হক

সিলেটের সব যাত্রী অবৈধ পথে ইতালির উদ্দেশ্যে পাড়ি জমিয়েছিলেন মো. এনামুল হক নামের এক দালালের হাত ধরে। নিরাপদে ইতালি পৌঁছে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাদের উদ্বুদ্ধ করে চুক্তি হয়েছিল ৮ লাখ টাকার। যাত্রীদের কাছ থেকে এরই মধ্যে টাকাও হাতিয়ে নেয় দালাল।

গত বৃহস্পতিবার ট্রলার ডুবির ঘটনার পর এনামুল হক নামের ওই দালাল তার প্রতিষ্ঠানে তালা দিয়ে পালিয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সিলেট নগরীর রাজা ম্যানশনের ৩য় তলার ‘নিউ ইয়াহিয়া ওভারসিজ’র মালিক মো. এনামুল হকের বাড়ি গোলাপগঞ্জ উপজেলার মেহেরপুর এলাকার পনাইরচক গ্রামে। ওই গ্রামের মৃত মো. আবদুল খালিকের ছেলে এনাম। ২০১৬ সালের ১ ডিসেম্বর মাসিক ৭ হাজার টাকা ভাড়া চুক্তিতে রাজা ম্যানশনের ৩য় তলার ১১৭ নম্বর দোকান ভাড়া নেন এনামুল হক। সেখানে সাইন বোর্ড টানান ‘নিউ ইয়াহিয়া ওভারসিজ’-এর। ট্রাভেলস ব্যবসায়ের আড়ালে মূলত মানবপাচারই ছিল তার ব্যবসা। ইউরোপের বিভিন্ন দেশে লোভনীয় উপার্জনের স্বপ্ন দেখিয়ে সিলেটের বেকার যুবকদের উদ্ধুদ্ধ করত সে। এরপর দালালচক্রের মাধ্যমে তাদের বিভিন্ন দেশে পাঠানোর চেষ্টা করত। ভূমধ্যসাগরে ট্রলার ডুবিতে এনামের পাঠানো যাত্রীদের মৃত্যুর আগ পর্যন্ত রাজা ম্যানশন মার্কেটে তার পরিচিতি ছিল একজন ভালো ট্রাভেলস ব্যবসায়ী হিসেবে। গত বৃহস্পতিবার নৌকা ডুবিতে প্রাণহানির ঘটনার পর ধীরে ধীরে বের হতে থাকে এনামের মানবপাচারের ঘটনা। এনাম যে মানবপাচার চক্রের সঙ্গে জড়িত তা গেল আড়াই বছরে ঘুণাক্ষরেও জানতে পারেননি-  দাবি ওই মার্কেটের ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মাসুদ আহমদের। তবে ট্রাভেলসের আড়ালে গোপন ব্যবসার আলামত আগেই পেয়েছিল অ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্ট অব বাংলাদেশ (আটাব)। তাই তার ট্রাভেলসকে দেওয়া হয়নি আটাবের সদস্যপদ।

 আটকে রাখা হয়েছিল তার আবেদন।

এ ব্যাপারে আটাব সিলেটের সভাপতি আবদুল জব্বার জলিল জানান, ‘নিউ ইয়াহিয়া ওভারসিজ’র ব্যবসা নিয়ে আমাদের সন্দেহ ছিল। তাই আবেদনের পরও তাকে আটাবের সদস্যপদ দেওয়া হয়নি। তার কার্যক্রম আমরা পর্যবেক্ষণ করছিলাম। এর মধ্যেই তার মানবপাচারের বিষয়টি ধরা পড়ল। এরকম আরও যেসব অবৈধ ট্রাভেলস ব্যবসায়ী মানবপাচারের সঙ্গে জড়িত তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।’

এদিকে ট্রলার ডুবিতে মৃত্যুর ঘটনার পর থেকে নিউ ইয়াহিয়া ওভারসিজে তালা ঝুলিয়ে গা ঢাকা দিয়েছে এনামুল হক। গতকাল রাজা ম্যানশনের তৃতীয় তলায় গিয়ে দেখা গেছে দোকানে তালা ঝুলছে। ট্রাভেলসের সাইন বোর্ডে লেখা দুটো ফোন নম্বরই বন্ধ ছিল। এনামের ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনটিও ছিল বন্ধ।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর