Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০১:৪৭

রাজধানীতে সড়ক আইনের সচেতনতা বাড়াতে মাঠে ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীতে সড়ক আইনের সচেতনতা বাড়াতে মাঠে ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ

রাজধানীতে নতুন সড়ক আইন সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে মাঠে নেমেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ট্রাফিক বিভাগ। পরিবহন মালিক, চালক, যাত্রী, পথচারী, মোটরসাইকেল আরোহী ও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিয়ে এই সচেতনতা কাজ অব্যাহত রেখেছে তারা। গতকাল বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ট্রাফিক পয়েন্ট মহাখালী, কালশী, এয়ারপোর্ট, আবদুল্লাহপুর, রামপুরা, সবুজবাগ, দয়াগঞ্জ ক্রসিং, নারিন্দা ক্রসিং, গোয়ালঘাট ক্রসিং, বাহাদুর শাহ পার্ক, মতিঝিল, গুলিস্তান ও ওয়ারীর বিভিন্ন এলাকায় এ সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। এ সময় লিফলেট বিতরণ করা হয়। একই সঙ্গে মাইকিং করে সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ সম্পর্কে জানানো হয়। গতকালও ট্রাফিক উত্তর বিভাগের উদ্যোগে বাস মালিক, চালক, হেলপার ও যাত্রীদের মাঝে লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। ফুটওভার ব্রিজ ব্যবহার নিয়ে কাকলীতে জনসাধারণকে নিয়ে কাউন্সিলিং ক্লাস অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নতুন সড়ক আইন সম্পর্কে ট্রাফিক উত্তর বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) প্রবীর কুমার রায় চালক, হেলপার ও যাত্রীদের নতুন আইন সম্পর্কে সচেতনতামূলক পরামর্শ দেন। এ সময় তিনি চালক ও হেলপারদের নির্ধারিত বাসস্টপেজে বাস থামানো, চলন্ত অবস্থায় বাসের দরজা বন্ধ রাখা, ঘুমঘুম চোখে গাড়ি না চালানো, ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি না চালানো, গাড়ির কাগজপত্র সঠিক আছে কিনা তা দেখে নেওয়া, মহাসড়কে দ্রুতগতিতে গাড়ি না চালানো ও পথচারীদের রাস্তা পারাপারে ফুটওভার ব্রিজ, জেব্রা ক্রসিং ব্যবহার মেনে চলার জন্য আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, সড়ক পরিবহন আইনে অপরাধ ও সাজা সম্পর্কে সবাইকে সচেতন করাই আমাদের এ প্রচারণা। কাকলীতে ফুটওভার ব্রিজ ব্যবহার না করা পথচারীদের সেখানকার পুলিশ বক্সে এনে সকালে এবং বিকালে ঘণ্টাব্যাপী সচেতনতামূলক ক্লাস নেওয়া হয়। এতে করে মানুষের ফুটওভার ব্রিজ ব্যবহারের প্রবণতা বাড়ছে। যখন ট্রাফিকের চাপ বাড়ে যেমন- বিশ্ব ইজতেমা ও হজের মৌসুমেও আমরা নানা ধরনের ট্রাফিক ব্যবস্থাপনার কাজ হাতে নিই। এদিকে, মহাখালী ও কাকলী মোড়ে যানজটে আটকে থাকা বাসগুলোতে উঠে ট্রাফিক পুলিশ সার্জেন্টদের সচেতনতামূলক প্রচার-প্রচারণা চালাতে দেখা যায়। তারা চালক ও হেলপারদের বলেন, নির্ধারিত বাসস্টপেজে বাস থামাবেন, যেখানে-সেখানে যাত্রী উঠা-নামা করাবেন না, চলন্ত অবস্থায় বাসের দরজা বন্ধ রাখবেন, চোখে ঘুম নিয়ে গাড়ি চালাবেন না, ড্রাইভিং লাইসেন্স ব্যতীত গাড়ি চালাবেন না, গাড়ির কাগজপত্র সঠিক আছে কিনা তা ভালোভাবে দেখে নেবেন, দ্রুতগতিতে গাড়ি চালাবেন না। ফুটওভার ব্রিজ ও জেব্রা ক্রসিং ছাড়া রাস্তা পারাপার না করতে পথচারীদের প্রতি অনুরোধ জানান।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর