শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:৪৮

বিতর্কিতদের জন্য সতর্ক বার্তা

রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সম্মেলন

কাজী শাহেদ, রাজশাহী

বিতর্কিতদের জন্য সতর্ক বার্তা

রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে ঘিরে চলছে পুরোদমে প্রস্তুতি। এবার সম্মেলনে নেতৃত্বে ঠাঁই পাচ্ছেন না বিতর্কিত আর অনুপ্রবেশকারীরা। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা এমন সতর্কবার্তা দিয়েছেন। তবে তৃণমূলের দাবি, তাদের মতামতে হোক নতুন কমিটি। সম্মেলনের সম্ভাব্য তারিখ ১ মার্চ।  সম্মেলনের সম্ভাব্য তারিখ ঘোষণার পর থেকেই মাঠে তৎপরতা শুরু করেছেন পদপ্রত্যাশীরা। তবে সাবেক ছাত্রলীগ নেতাদের দাবি, অনুপ্রবেশকারীদের এবার যেন ঠাঁই দেওয়া না হয়। সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আহসানুল হক পিন্টু বলেন, যাকে নেতৃত্বে নিয়ে আসা হবে, তিনি যেন আওয়ামী লীগের উন্নয়ন বার্তা সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারেন। সম্পর্ক থাকে তৃণমূলের সঙ্গে। আরেক সাবেক ছাত্রলীগ নেতা হাবিবুর রহমান বাবু মনে করেন, যাকে নেতৃত্বে নিয়ে আসা হবে, তিনি যেন ছাত্রলীগ থেকে আসা হন। সদ্য যোগদানকারী আর সুবিধাভোগীরা যাতে নেতৃত্বে আসতে না পারেন- সেটি কেন্দ্র থেকে মনিটরিং করা দরকার।  পাঁচ বছরের বেশি সময় পরে এ সম্মেলন। তাই তৃণমূলের নেতাদের প্রত্যাশা, কেন্দ্র থেকে চাপিয়ে দিয়ে নয়, তাদের মতামতে হোক     নগরীর ২১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন জানান, দীর্ঘদিন পর সম্মেলন হচ্ছে। ফলে তৃণমূলের নেতাদের একটা প্রত্যাশা থাকে। ভোটের মাধ্যমে নেতৃত্ব নির্বাচিত হলে, নেতাদের কাছে কর্মীদের গুরুত্ব বাড়ে। তবে কেন্দ্র যদি কমিটি সিলেকশন করে দেয় তাহলে যেন জনপ্রিয় কাউকে দেয়- সেই দাবি রাখেন তিনি। বোয়ালিয়া থানা (পূর্ব) সভাপতি আতিকুর রহমান দাবি করেন, ভোটের মাধ্যমে নেতা নির্বাচিত দলের কর্মীরা মূল্যায়িত হয়। তাই আগামীর নেতৃত্বে ভোটে হওয়া উচিত।

তৃণমূলের ভোটে, নাকি কেন্দ্রের সিদ্ধান্তে কমিটি- তা জানা যাবে সম্মেলনে। তবে এবার পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে জায়গা হবে না অনুপ্রবেশকারী ও বিতর্কিতদের- এমনটা জানিয়েছেন নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ ডাবলু সরকার বলেন, আশা করছি এবার যারা কমিটিতে আসবেন, তারা নিশ্চয় বিতর্কিতদের স্থান দেবেন না।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর