শিরোনাম
প্রকাশ : ২৮ মে, ২০২০ ১৯:৩১

রংপুরে অপ্রতিরোধ্য গতিতে বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর

রংপুরে অপ্রতিরোধ্য গতিতে বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত

রংপুর জেলায় অপ্রতিরোধ্য গতিতে বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা। বিভাগের মধ্যে আক্রান্ত রোগীর শীর্ষে রয়েছে রংপুর। এখানে ৩৭৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ১৬০ জনই আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও স্বাস্থ্য বিভাগের লোক। 

আক্রান্তদের মধ্যে পুলিশ ৫৬ জন, র‌্যাব ১৮ জন, রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের চিকিৎসক ৩৮ জন, নার্স ও কর্মচারী ২৬ জন, হাসপাতালে কর্তব্যরত আনসার ও ভিডিপির সদস্য ২২ জন। এছাড়াও রংপুর রেঞ্জ রিজার্ভ পুলিশের এসপি মেনহাজুল ইসলামসহ তার পরিবারের সাত জন আক্রান্ত হয়েছেন। 

করোনায় আক্রান্ত হয়ে বিভাগে এখন পর্যন্ত ১২ জন মারা গেছেন। তাদের মধ্যে রংপুরে পাঁচ জন, পঞ্চগড়ে এক জন, নীলফামারীতে দুই জন, দিনাজপুরে একজন এবং গাইবান্ধায় তিন জন রয়েছেন।
 
রমেক সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রংপুর মেডিকেল কলেজে নমুনা পরীক্ষায় আরও ২০ জন আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তরা হলেন, র‌্যাবের ১২ সদস্য, রংপুর নগরীর নিউ সেনপাড়ার এক নারী (৪৫), এক পুরুষ (৫২), মিঠাপুকুরের লতিবপুর ইউনিয়নের এক পুরুষ (৪০), গাইবান্ধা সাদুল্যাপুরের এক যুবক (২২), অপর যুবক (২৬), এক তরুণী (২২), গাইবান্ধা সদরের শাপলা মিলের এক পুরুষ (৪২) এবং লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে কর্মরত এক পুরুষ (৪৮)। দুই দফায় ১৮৮ জনের দেহের নমুনা পরীক্ষা করে শনাক্তের এই সংখ্যা পাওয়া যায়।

এ নিয়ে রংপুর বিভাগের আট জেলায় করোনা শনাক্তের সংখ্যা ৮৬৮ জনে দাঁড়িয়েছে। বুধবার পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১২ জন। শীর্ষে রয়েছে রংপুর জেলা, এখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৭৫ জনে পৌঁছেছে। 

রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, এখন পর্যন্ত রংপুর বিভাগের আট জেলায় হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো রোগীর সংখ্যা তিন হাজার ৬৫২ জন। তাদের মধ্যে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে দুই হাজার ৫২ জনকে। গত ২৪ ঘণ্টায় হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে ৩০৩ জনকে। এর মধ্যে রংপুরে ৩৫, পঞ্চগড়ে ২০, নীলফামারীতে ৬৮, লালমনিরহাটে ১২, কুড়িগ্রামে ৭, ঠাকুরগায়ে ৩, দিনাজপুরে ৯২ এবং গাইবান্ধায় ৬২ জন। 

এছাড়াও রংপুর বিভাগের আট জেলায় কোভিড-১৯ আক্রান্ত ৮৩৮ জনকে আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে রংপুরে ৩৫৬ জন, পঞ্চগড়ে ৫৫ জন, নীলফামারীতে ৯৪, লালমনিরহাটে ৩৩, কুড়িগ্রামে ৬০, ঠাকুরগায়ে ৬৩, দিনাজপুরে ১৪৭ এবং গাইবান্ধায় ৩০ জন। ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে ২৪৮জনকে। 

এদিকে রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক ডা. আমিন আহাম্মেদ জানান, করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য রংপুরে ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতাল চালু করা হয়েছে। বর্তমানে সেখানে ৩৫ জন রোগী চিকিৎসাধীন আছেন।


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর