Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ আগস্ট, ২০১৯ ১৮:৪১

রূপগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

রূপগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসবের আয়োজন করাকে কেন্দ্র করে হিন্দু সম্প্রদায়ের দুই পক্ষের মাঝে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার ভিংরাব এলাকার শ্রী শ্রী রাধাগোবিন্দ মন্দিরে ঘটে এ সংঘর্ষের ঘটনা।
 
প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সুত্র জানায়, ভিংরাবো এলাকায় শ্রী শ্রী রাধাগোবিন্দ মন্দির রয়েছে। আর এ মন্দিরকে ঘিরে হিন্দু সম্প্রদায়েরের দুটি পক্ষ রয়েছে। একটি পক্ষ ভিংরাবো এলাকার প্রাণ কুমারের পক্ষ। আরেকটি প্রাণ বন্দ প্রভুর পক্ষ। শ্রী শ্রী রাধাগোবিন্দ মন্দিরে ধর্মীয় বিভিন্ন অনুষ্ঠানকে ঘিরে তাদের দু’পক্ষের মাঝে প্রায় সময় নানা বিরোধ দেখা দেয়। এতে করে উভয় পক্ষই হুমকি-ধামকি থেকে শুরু করে মারপিটের ঘটনা ঘটিয়ে থাকে। তাদের বিরোধ সমাধান করতে প্রশাসন একাধিকবার চেষ্টা করেছেন। 
শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসবের আয়োজন করেন প্রাণ বন্দ প্রভুর পক্ষের কাজল, অভিলাস, রঞ্জিত, সারুতি মধুসুদন দাস, মনোরঞ্জন সরকার সেন। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শ্রী শ্রী রাধাগোবিন্দ মন্দিরে উৎসবের আয়োজন শুরু করেন। পরে দুপুরের দিকে প্রাণ কুমারের পক্ষের রাজকুমার, গোপাল, মাহেন্দ্র, সম্ভুনাথ চৌকিদার, যোগেস চন্দ্র সরকারসহ তাদের লোকজন একই মন্দিরেই আলাদা ভাবে শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসবের আয়োজনের লক্ষ্যে প্যান্ডেল স্থাপন শুরু করেন। 
পরে প্রাণ বন্দ প্রভুর পক্ষের লোকজন প্যান্ডেল করতে প্রাণ কুমারের পক্ষের লোকজনকে বাধা প্রদান করেন। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মাঝে তর্কবিতর্ক, বাকবিতন্ডা ও হাতাহাতি শুরু হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন ধারালো ও দেশীয় অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের প্রাণ বন্দ প্রভু, বেনু মোহন, জরু ঠাকুর, শারুতি কৃষ্ণ, মধু সুদন দাস, শ্যামল, বাবুল, কিশোর, রোপন, তাপস, অজয় রানী দাস আহত হয়। এদের মধ্যে প্রান বন্দ প্রভু, জরু ঠাকুর ও কিশোরকে মুমুর্ষ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনার সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে থানা পুলিশ পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। ঘটনার পর থেকে উভয় পক্ষের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। 
এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান বলেন, উভয় পক্ষ থেকেই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। উভয় পক্ষের অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য