শিরোনাম
প্রকাশ : ১৮ জানুয়ারি, ২০২০ ১৭:২২

বরিশাল-মীরগঞ্জ-মুলাদী-হিজলা সড়কে যান চলাচল বন্ধ

অতিরিক্ত মাল বোঝাই ট্রাকের চাপে ডুবল মীরগঞ্জ ফেরীঘাটের পন্টুনসহ গ্যাংওয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল :

অতিরিক্ত মাল বোঝাই ট্রাকের চাপে ডুবল মীরগঞ্জ ফেরীঘাটের পন্টুনসহ গ্যাংওয়ে

বরিশাল-মীরগঞ্জ-মুলাদী-হিজলা সড়কের মীরগঞ্জ ফেরীঘাটের পূর্বপ্রান্তে পন্টুন ও গ্যাংওয়ে অতিরিক্ত বৈদ্যুতিক খাম্বা বোঝাই ট্রাকসহ ডুবে গেছে। শনিবার সকাল ৮টায় এ দুর্ঘটনার পর থেকে ওই সড়কে সরাসরি যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। খাম্বা বোঝাই ট্রাকটির পেছনের অংশ পন্টুন ও গ্যাংওয়েসহ ডুবে গেলেও এর চালক ও হেলপার অক্ষত রয়েছে। 

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের ফেরী বিভাগ আংশিক নিমজ্জিত ট্রাকটি উত্তোলন করে দ্রুত সময়ের মধ্যে ওই ফেরীঘাট সচল করার চেষ্টা করছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তকর্তারা। 

স্থানীয় বাসিন্দা জহিরুল অরুন জানান, শনিবার সকালে বৈদ্যুতিক খাম্বা বোঝাই একটি ট্রাক মীরগঞ্জ ফেরীঘাটের পূর্বপ্রান্ত পার হচ্ছিলো। ১৬টি খাম্বা পরিবহন ক্ষমতাসম্পন্ন ওই ট্রাকে ছিলো ৪২টি খাম্বা। সকাল ৮টার দিকে ট্রাকটি মীরগঞ্জ ফেরীঘাটের পূর্বপ্রান্ত থেকে উপরে উঠছিলো। এসময় ট্রাকের ভারে পন্টুনসহ গ্যাংওয়ে ডুবে যায়। ট্রাকটি অর্ধনিমজ্জিত হয়ে পড়ে। এই দুর্ঘটনার পর থেকে বরিশাল-মীরগঞ্জ-মুলাদী-হিজলা সড়কে সরাসরি যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। 

মীরগঞ্জ ফেরীঘাটে ফেরী বিভাগের সুপারভাইজার মো. রফিকুল ইসলাম জানান, বৈদ্যুতিক খাম্বা বোঝাই ট্রাকটি ফেরী থেকে উঠে গ্যাংওয়ে পার হওয়ার সময় ট্রাকের ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যায়। খাড়া ঢাল থাকায় ট্রাকটি মুহূর্তে পেছনের দিকে পন্টুনে গিয়ে ঠেকে যায়। এতে অতিরিক্ত ওজনের চাপে পন্টুন কাত হয়ে পানি ঢুকে যায়। এসময় ট্রাকের পেছনের অংশসহ পন্টুন পুরোপুরি এবং গ্যাংওয়ে আংশিক ডুবে যায়। ট্রাকে থাকা চালক ও হেলপার নিরাপদে বের হয়ে পালিয়ে যায়। ফেরী থেকে ওঠার সময় ট্রাকটির ইঞ্জিনের স্টার্ট বন্ধ না হলে এই দুর্ঘটনা ঘটতো না বলে মনে করেন তিনি।

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের বরিশাল ফেরী বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আজম শেখ জানান, ট্রাকটি অতিরিক্ত মাল বোঝাই হওয়ায় দুর্ঘটনা ঘটেছে। ট্রাকের খাম্বাগুলো আগে উত্তোলন করে ট্রাকটি উদ্ধারের পর ক্রেন দিয়ে ডুবে যাওয়া পন্টুন উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। একই সাথে দ্রুত সময়ের মধ্যে সরাসরি যান চলাচল শুরুর জন্য ওই ঘাটের পাশে একটি বিকল্প গ্যাংওয়ে নির্মানসহ একটি পন্টুন প্রতিস্থাপনের কাজ চলছে। সড়ক ও জনপথ বিভাগ এবং ফেরী বিভাগ যৌথভাবে এই কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে বলে জানান নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আজম শেখ।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য