শিরোনাম
প্রকাশ : ২০ অক্টোবর, ২০২০ ১৫:৪৫
আপডেট : ২০ অক্টোবর, ২০২০ ১৫:৫৫

রাঙামাটিতে জেএসএস ও সংস্কারপন্থীদের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধে নিহত ১

ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি

রাঙামাটিতে জেএসএস ও সংস্কারপন্থীদের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধে নিহত ১
বন্দুক যুদ্ধের ঘটনায় নিহত পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক রতন চাকমা

রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি জেএসএস ও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির একাংশ এমএন লারমার সংস্কারপন্থী গ্রুপের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধের ঘটনায় ঘটেছে। এতে সংস্কারপন্থী গ্রুপের পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক রতন চাকমা ওরফে রত্ন (২২) নিহত হয়েছেন। 

তিনি বাঘাইছড়ি উপজেলার দক্ষিণ পাবলাখালী খেদারমারা ইউনিয়নের বাসিন্দা অন্ধ লাল চাকমার ছেলে। 

আজ মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলার বাবুপাড়া এলাকায় এঘটনা ঘটে। এতে ওই এলাকায় চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এলাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। 

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, পাহাড়ের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রাঙামাটি বাঘাইছড়ি উপজেলার বাবু পাড়ায়  পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি জেএসএস ও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির একাংশ এমএন লারমার সংস্কারপন্থী গ্রুপের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চলে বন্দুক যুদ্ধ। 
এসময় বাঘাইছড়ি কাচালং ডিগ্রি কলেজের এমএন লারমার সংস্কারপন্থী গ্রুপের পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক রতন চাকমা ওরফে রত্ন গুলিবিদ্ধ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। কিন্তু তার আগে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। পরে এলাকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

এব্যাপারে বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আশরাফ জানান, সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত রতনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর