শিরোনাম
প্রকাশ : ৩১ জানুয়ারি, ২০২১ ২০:০৫
আপডেট : ৩১ জানুয়ারি, ২০২১ ২২:৫৮
প্রিন্ট করুন printer

শৈলকুপায় সংঘর্ষে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতিসহ আহত ৭

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

শৈলকুপায় সংঘর্ষে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতিসহ আহত ৭

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় উপজেলার উপ-নির্বাচনে নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থীর স্ত্রী শেফালী বেগমকে নৌকার প্রতীক দেওয়ার ঘটনায় সংঘর্ষে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতিসহ ৭ জন আহত হয়েছেন। তাদেরকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

রবিবার দুপুরে বগুড়া ইউনিয়নের কামান্না গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনা নিয়ে উপজেলা শহর ও বগুড়া ইউনিয়নের ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে। 

জানা গেছে, ২০১৮ সালে শৈলকূপা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পান মুক্তিযোদ্ধা নায়েব আলী জোয়ার্দার। ওই সময় দলীয় সিন্ধান্ত অমান্য করে বিদ্রোহী প্রার্থী হন শৈলকুপা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোশারফ হোসেন সোনা শিকদার। তিনি নৌকার প্রার্থীকে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এরপর গত বছরের ৪ নভেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন সোনা। নির্বাচন কমিশন তফশিল ঘোষণা করে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি উপ-নির্বাচন দিন ধার্য করে। আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নের জন্য ১০জন তাদের জীবন বৃত্তান্ত জমা দেন। কিন্তু শনিবার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ড মরহুম সোনা শিকদারের স্ত্রী শেফালী বেগমকে দলীয় মনোনয়ন ঘোষণা করেন। ঘটনা নিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। রবিবার দুপুরে উপজেলার বগুড়া ইউনিয়নের কামান্না গ্রামে মরহুম সোনা শিকদারের বিয়াই নজরুল ইসলাম গ্রুপের সাথে জেলা যুবলীগ যুগ্ম আহ্বায়ক শিমুল গ্রুপের নেতাকর্মীদের সাথে তর্কবির্তক হয়। এক পর্যায়ে নজরুল গ্রুপের রিয়াজ বিশ্বাস, শহিদুল, নরুল, নাহিদ, রাজ্জাক, আয়ুব, হবিবর জোট বন্ধ হয়ে অর্তকিত হামলা চালায় শিমুল গ্রুপের নেতাকর্মীদের উপর। হামলায় বগুড়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তফা বিশ্বাস, বগুড়া ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি শফিকুল বিশ্বাস, মিলন, মোস্তফা, আকামত ও মতি মোল্লাসহ ৭জন আহত হয়। 

এ ব্যাপারে শৈলকুপা ওসি জাহাঙ্গীর আলম সংঘর্ষে ঘটনা স্বীকার করেন জানান, মনোনয়ন নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটতে পারে। তবে আমরা পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করছি। কেউ অভিযোগ দিলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। 

এদিকে বিদ্রোহীর স্ত্রীর প্রার্থীতা দেওয়ায় তা পরিবর্তনের জন্য কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের বরাবর আবেদন করেছেন ২০১৮ সালে শৈলকূপা উপজেলা পরিষদ দলীয় মনোনয়ন পাওয়া নায়েব আলী জোয়ার্দার। তিনি তার আবেদনে উল্লেখ করেন, মরহুম সোনা শিকাদারের স্ত্রীকে মনোনয়ন দেওয়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে চরম ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে। নৌকায় ভোট দেয়া ও করার জন্য অনেকেই মার খেয়েছে, বাড়ি ছাড়া হয়েছে। কিন্তু আজ তাদের হাতেই নৌকা তুলে দেয়া হয়েছে। এ রকম ঘটনা ঘটতে থাকলে ভবিষ্যতে নৌকার প্রতি মানুষ আস্থা হারিয়ে ফেলবে। মাত্র ১৫ দিন আগেও শেফালী বেগমের দুই ছেলে নৌকার বিপক্ষে বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। বিদ্রোহী প্রার্থী ছিল আজ তারাই নৌকা প্রতীক পেয়েছে যা দুঃখজনক জনক ও হাস্যকর। তিনি এ ব্যাপারে দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।  

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর