শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৮:৫৬
প্রিন্ট করুন printer

'কৃষকদের উৎসাহ যোগাতে প্রণোদনা অব্যাহত রেখেছে সরকার'

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:

'কৃষকদের উৎসাহ যোগাতে প্রণোদনা অব্যাহত রেখেছে সরকার'

কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো: মেসবাহুল ইসলাম বলেন, সরকার কৃষকদের উদ্বুদ্ধকরণে এ অঞ্চলসহ সারাদেশে কৃষকদের সূর্যমুখী ও অন্যান্য শস্য উৎপাদনে ব্যাপক কৃষি প্রণোদনা প্যাকেজের মধ্য দিয়ে সহায়তা করে যাচ্ছে। যাতে তারা (কৃষক) এটি করতে আরো আগ্রহী হন সে ব্যাপারে সাপোর্ট অব্যাহত থাকবে।

শুক্রবার দুপুরে সূর্যমূখির চাষ পরিদর্শন শেষে মাঠ দিবসের কর্মসূচিতে এসব কথা বলেন তিনি।

কুড়িগ্রামের চরাঞ্চলে বিগত বছরগুলোর চেয়ে অনেক বেড়েছে সূর্যমুখীর চাষ। এবছর ২০০ হেক্টর জমিতে সূর্যমুখীর চাষ করে ৩২ কোটি টাকা বিক্রির আশা করছেন এ অঞ্চলের কৃষকরা। 

জেলা কৃষি বিভাগের মতে, তিস্তা, ধরলা, ব্রহ্মপুত্রের চরে সুর্যমুখী চাষ সম্প্রসারণ করে চরের কৃষকের ভাগ্য বদলানোর পাশাপাশি দেশের আমদানী নির্ভর ভোজ্য তেলের অনেকটাই যোগান দেয়া সম্ভব। ১৬টি নদ-নদী বেষ্টিত জেলা যার ৫ শতাধিক চর রয়েছে। কুড়িগ্রামে বিগত বছরগুলোর চেয়ে এ বছর ব্যাপক সূর্যমুখীর চাষ করা হয়েছে। চরের পতিত জমিতে সূর্যমুখী চাষ করে একদিকে যেমন আয় হবে তেমনি কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে তাদের। অন্যদিকে পতিত অনাবাদি জমিকে কাজে লাগিয়ে লাভবান হচ্ছেন তারা। 

গত বছর জেলায় ২০ হেক্টর জমিতে সূর্যমুখীর আবাদ হলেও এবার আবাদ হয়েছে ২০০ হেক্টর জমিতে। প্রতি হেক্টরে ২ মে.টন সূর্যমুখী তেল বীজ উৎপাদন হয়। বর্তমানে প্রতি কেজি তেল বীজের দাম ৮০ টাকা। প্রতি হেক্টর জমিতে ১ লাখ ৬০ হাজার টাকার তেল বীজ বিক্রি হবে বলে কৃষিবিভাগের প্রত্যাশা। সে হিসেবে এবার জেলায় কমপক্ষে ৩২ কোটি টাকার সুর্যমুখীর তেলবীজ বিক্রির আশা কৃষকদের। 

রাজস্ব ফলোআপ ও প্রণোদনা কর্মসূচি-২০২১ এর আওতায় সূর্যমুখী আবাদ সম্প্রসারণের লক্ষ্যে কুড়িগ্রামে মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে সদর উপজেলার ভোগডাঙ্গা ইউনিয়নের চর মাধবরাম গ্রামে এ মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো: মেসবাহুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কৃষিবিদ মো: আসাদুল্লাহ, রংপুর কৃষি  সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ খন্দকার আব্দুল ওয়াহেদ, কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো: মঞ্জুরুল হক প্রমুখ। 


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর