শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ জুন, ২০২১ ১৮:২৩
আপডেট : ২৪ জুন, ২০২১ ১৮:৪৩
প্রিন্ট করুন printer

বেনাপোল বন্দরে ভায়াগ্রা পাউডার জব্দ

বেনাপোল প্রতিনিধি

বেনাপোল বন্দরে ভায়াগ্রা পাউডার জব্দ
Google News

বেনাপোল স্থলবন্দরে আমদানিকৃত মোটর পার্টসের পণ্য চালানে মিললো ভায়াগ্রা পাউডার। চালানটি আটক করেছে কাস্টমস সদস্যরা। তবে এ ঘটনায় এ পর্যন্ত কারও বিরুদ্ধে কোনো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। জব্দকৃত ভায়াগ্রার পরিমাণ প্রায় ২৬ কেজি।

এর আগে ২০১৯ সালে শুল্ক কর্তৃপক্ষ ১২ কোটি টাকা মূল্যমানের আড়াই টন ওজনের ভায়াগ্রার একটি পণ্য চালান আটক করে। সে সময় সিএন্ডএফ প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স বাতিল এবং আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে বেনাপোল পোর্ট থানায় (২৫বি) ধারায় একটি মামলা হয়।

বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক মামুন কবীর তরফদার ভায়াগ্রার চালান আটকের তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, কাস্টমস এ সংক্রান্ত একটি চিঠি তাদের দিয়ে পণ্য চালানটি নিজেদের জিম্মায় নিয়েছেন। পরবর্তী ব্যবস্থা তারা গ্রহণ করবেন।

গত ২৩ জুন বিকালে বেনাপোল বন্দরের ৪২ নম্বর পণ্যগার থেকে ভায়াগ্রা চালানটি জব্দ করে কাস্টমস সদস্যরা। কাস্টমসের ল্যাবে পরীক্ষা শেষে প্রাথমিক পরীক্ষায় ভায়াগ্রা নিশ্চিত হয় কাস্টমস সদস্যরা। মোটর পার্টস ঘোষণায় ভায়াগ্রা আমদানি করেন যশোরের মামনি এন্টারপ্রাইজ। পণ্যটি বন্দর থেকে ছাড় করানোর চেষ্টা করছিলেন বেনাপোলের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট আমিন ইমপোর্টস অ্যান্ড এক্সপোর্টস।

বেনাপোল কাস্টমস হাউসের ‍নিয়ামুল ইসলাম জানান, আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানটি মোটরপার্টস অ্যান্ড আদার্স ঘোষণায় ভারত থেকে ৩০১ প্যাকেজের একটি পণ্য চালান আমদানি করে বন্দরের ৪২ নম্বর শেডে গুদামজাত করেন। চালানটি কায়িক পরীক্ষায় দেখা যায়, ৩০১ প্যাকেজের মধ্যে ১১৪ নম্বর প্যাকেজে পাউডার জাতীয় পণ্য ২৬.২১ কেজি রয়েছে। পরে সেটি কাস্টমস হাউজের রাসায়নিক পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষা করে ভায়াগ্রা শনাক্ত হয়। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন বলে জানান কাস্টমসের ওই কর্মকর্তা।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর

এই বিভাগের আরও খবর