শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ জুলাই, ২০২১ ২০:০২
প্রিন্ট করুন printer

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ৮০ গরু নিয়ে ঢাকায় গেল ক্যাটেল ট্রেন

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ৮০ গরু নিয়ে ঢাকায় গেল ক্যাটেল ট্রেন
ফাইল ছবি
Google News

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে আজ ট্রেনে করে ৮০টি গরু ঢাকায় গেছে। শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টায় ক্যাটেল স্পেশাল ট্রেনটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন থেকে  ছেড়ে গেছে। স্বল্প ভাড়ায় দেশের উত্তরাঞ্চল ও দক্ষিণাঞ্চল থেকে ঢাকায় কোরবানির পশু পরিবহনের জন্য দুই জোড়া ক্যাটেল স্পেশাল ট্রেন চালু করেছে রেলপথ মন্ত্রণালয়।

জানা গেছে, করোনাকালীন প্রান্তিক খামারিদের উৎসাহ দিতে এবং কোরবানির পশু সহজে ভোক্তাদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য স্বল্প মূল্যে পশু পরিবহনে বিশেষ এই ট্রেন চালু করা হয়েছে। প্রথম যাত্রায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলস্টেশন থেকে ২ নম্বর প্ল্যাটফর্মে দুপুর আড়াইটা থেকে ৪টি ওয়াগনে গরু উঠানো শুরু করা হয়।

এসময় রেল স্টেশনে খামারি ও ব্যবসায়ীদের উদ্বুদ্ধ করতে উপস্থিত ছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন শিমুল, জেলা প্রশাসক মো. মঞ্জুরুল হাফিজ ও  জেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মোস্তাফিজুর রহমানসহ অন্যরা।

প্রতিটি ওয়াগনে ২০টি করে মোট ৮০টি গরু ও ৪টি ছাগল নিয়ে স্পেশাল ট্রেনটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে। কোরবানির পশু পরিবহনের জন্য চালু হওয়া ক্যাটল স্পেশাল ট্রেনের প্রথম যাত্রা এটি।

সদর উপজেলার শ্রীরামপুরের গরুর খামারি শামিম মুন্সি জানান, ট্রেনের ব্রডগেজের দুটি ওয়াগনে ৪০টি করে গরু নেওয়া হয়েছে। প্রতিটি গরুর জন্য ভাড়া নেওয়া হয়েছে ৫৯১ টাকা। এতে করে টাকা সাশ্রয়ী হয়েছে। এ মুহূর্তে মহাসড়কে যে পরিমাণ যানজট তাতে ট্রাকে বহন করে যথাসময়ে ঢাকা নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। তাই সহজ বাহন হিসেবে ট্রেনকে বেছে নেওয়া হয়েছে।

টিকরামপুরের আরেক ব্যবসায়ী সামসুল ইসলাম জানান, ক্যাটেল ট্রেনে গরু পাঠানোর ক্ষেত্রে কোনো ধরনের প্রতিবন্ধকতা ছাড়াই ২টি ওয়াগনে চারজনের ৮০টি গরু নিয়ে সরাসরি ট্রেনটি কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে যাচ্ছে। এতে করে বাড়তি ঝামেলা পোহাতে হবে না।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলওয়ের সহকারী স্টেশন মাস্টার মো. ওবাইদুল্লাহ জানান, ক্যাটেল ট্রেনে গরু পাঠানোর জন্য ব্যবসায়ীদের আরো আগ্রহ বাড়াতে বিভিন্ন খামারি ও ব্যবসায়ীদের উদ্বুদ্ধ করা হয়েছিল। তারা এতে সাড়া দেওয়ায় চারজন খামারি ও ব্যবসায়ীর ৮০টি গরু ও ৪টি ছাগল এই ট্রেনে গেছে।

প্রতিটি গরু বহনে ৫৯১ টাকা এবং ছাগল বহনে ২৪৬ টাকা করে নেওয়া হয়েছে। ৮০টি গরুতে টার্মিনাল চার্জ ও অ্যাডিশনাল চার্জসহ সব মিলিয়ে ৪০ হাজার ২৪৬ টাকা আয় হয়েছে। আগামীতে ট্রেনে পশু পরিবহনে খামারিদের উৎসাহ বাড়বে বলে মনে করেন তিনি।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর