৮ আগস্ট, ২০২১ ১৭:২২

পুলিশ পরিচয়ে আসামি ধরতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

পুলিশ পরিচয়ে আসামি ধরতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা

রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলায় ভুয়া পুলিশ সেজে আসামি ধরতে গিয়ে জনতার হাতে দুইজন আটক হয়েছে। পরে ৯৯৯ ফোন দিলে পুলিশ এসে তাদের থানায় নিয়ে যান। রবিবার সকালে উপজেলার কাফ্রিখাল ইউনিয়নের কোনাপাড়া নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, আরিফুল ইসলাম নামে একজন মোটরসাইকেল মেকানিক্স একই ইউনিয়নের মহদীপুর গ্রামে বিয়ে করেন। সেখানে বউয়ের সাথে মনোমালিন্য হলে গত ২৭ আগস্ট শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে বেধরক মারপিট করে। এরপর সুযোগ বুঝে আরিফুলের পরিবারের লোকজন তার শ্বশুর বাড়ির একজনকে মারধর করেন।

এ ঘটনায় মিঠাপুকুর থানায় মামলা করেন তারা। মামলার পরে দুলাভাইয়ের বাসায় পালিয়ে থাকেন আরিফুল ইসলাম। তার দুলাভাইয়ের বাসায় সকালে কামরুজ্জামান ও দুলাল নামে দুই ব্যক্তি পুলিশ পরিচয় দিয়ে তাকে উঠিয়ে নিয়ে আসতে চাইলে এলাকার লোকজন বাধা দেয়। পুলিশের আইডি কার্ড দেখতে চাইলে দেখাতে না পারলে জনগণ ৯৯৯ নম্বরে ফোন দেন। পরে পুলিশ এসে তাদের গ্রেফতার করেন।

আটক ব্যক্তিরা হলেন-উপজেলার পার্শ্ববর্তী লতিবপুর ইউনিয়নের জায়গীরহাট এলাকার বাতাসন দূর্গাপুর মৌসুমীপাড়া গ্রামের মৃত নুরুজ্জামানের ছেলে কামরুজ্জামান ও জায়গীর বাসস্ট্যান্ড মসজিদ সংলগ্ন সাইফুল ইসলামের ছেলে দুলাল মিয়া।

এলাকাবাসী জানায়, কামরুজাম্মান ইতিপূর্বে রংপুর শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরে ড্রাইভারের চাকরি করতেন । ৬ মাস আগে তার চাকরি চলে যায়। সাইফুল ইসলাম একজন কাঁচামাল ব্যবসায়ী।

মিঠাপুকুর থানার ওসি (তদন্ত) জাকির হোসেন জানান, এই ঘটনায় আরিফুলের বোন বেবি নাজনিন বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন। গ্রেফতার ব্যক্তিদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর