২ জানুয়ারি, ২০২২ ২১:১৫

সাভারে ১১ ইউপিতে বিদ্রোহীর ছড়াছড়ি, চলছে শেষ মুহূর্তে প্রচারণা

সাভার প্রতিনিধি

সাভারে ১১ ইউপিতে বিদ্রোহীর ছড়াছড়ি, চলছে শেষ মুহূর্তে প্রচারণা

আর মাত্র ২দিন পরে অনুষ্ঠিত হবে সাভার উপজেলার ১১ ইউনিয়নে (ইউপি) নির্বাচন। শেষ মুহূর্তে নির্বাচনকে ঘিরে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে উপজেলার ১১ ইউনিয়নের প্রতিটি এলাকা। মানুষের মাঝে বিরাজ করছে নির্বাচনী আমেজ। স্থানীয় সরকার নির্বাচন আইন অনুযায়ী, ভোটগ্রহণ শুরুর ৩২ ঘণ্টা আগে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা বন্ধ করতে হয়। সে হিসাবে সোমবার রাত ১২টা থেকে নির্বাচনী প্রচার কাজ বন্ধ করাসহ ৪ই জানুরয়ারী রাত ১২টা পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। 

ভোটের আগের দিন ৪ জানুয়ারী রাত ১২টা হতে ভোটের দিন ৫ই জানুয়ারী রাত ১২টা পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় ট্রাক ও পিকআপ চলাচল বন্ধ থাকবে। এছাড়া জরুরি সেবাসহ অন্যান্য পরিবহন চলাচল করতে পারবে জানিয়ে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাচন অফিস বলছে, ‘এবার উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিতে ক্ষমাতাসীন দল আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনীত নৌকা প্রতীকের ১১জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর পাশাপাশি আওয়ামী লীগের (বিদ্রোহী) ৪৬ জন ও বিএনপিসহ অন্যান্য দলের ১০ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সাধারণ ও সংরক্ষিত ১২১ আসনের বিপরীতে এবার ৪২২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।’

সরেজমিনে উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন ঘুরে দেখা গেছে,‘নির্বাচন কে কেন্দ্র করে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ভোট প্রার্থনা ও নিয়মিত উঠান বৈঠক করেছে প্রার্থীরা। ইউনিয়নগুলোর প্রতিটি এলাকার অলিগলি, দোকানের সামনে, ফাঁকা জায়গায় প্রার্থীদের পোষ্টারে পোষ্টারে ছেয়ে গেছে। চায়ের স্টল, হোটেলসহ সব জায়গাতেই এখন চলছে প্রার্থীদের নিয়ে আলোচনা আর জল্পনা-কল্পনা। কে হচ্ছে চেয়ারম্যান ও মেম্বার। ভোটারদের বিভিন্ন উন্নয়নের প্রতিশ্রুতিও দিচ্ছে প্রার্থীরা। এদিকে প্রার্থীদের নিয়ে তার কর্মীসমর্থকরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও চলাচ্ছে জোর নির্বাচনী প্রচারণা। 

গ্রহণযোগ্য ও সুষ্ঠু ইউপি নির্বাচন সম্পন্ন করতে ইতিমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে জানিয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসার ফকর উদ্দিন বলেন, সাভার উপজেলার ১১ টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন হবে শতভাগ সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ। এজন্য ২৪১ টি ভোট কেন্দ্রে ভোটের দিন সকালে যাবে ব্যালট পেপার। মাঠে থাকবে ৪ প্লাটুন বিজিবি, স্টাইকিং ফোর্স ৬ র‌্যাব, পুলিশ, আনসার, ১১টি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ৫টি জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট থাকবে। প্রশাসন রয়েছে সর্বোচ্চ সতর্ক স্থানে। 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

সর্বশেষ খবর