৬ মে, ২০২২ ১৭:৫৩

ইমামের বিরুদ্ধে শিশু ধর্ষণের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

ইমামের বিরুদ্ধে 
শিশু ধর্ষণের অভিযোগ

প্রতীকী ছবি

রংপুরের মাহিগঞ্জে মসজিদের ইমামের বিরদ্ধে তিন বছরের শিশু ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করেছে ওই শিশুর মা। পুলিশ অভিযুক্ত ইমামকে গ্রেফতারে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে। 

মামলা ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রংপুর নগরীর মাহিগঞ্জের স্থানীয় একটি মসজিদে ইমামতি করেন তৈয়ব দলবাড়ি গ্রামের মফিজুল ইসলামের ছেলে মাহফুজুর রহমান (৩০)। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে ভুক্তভোগী শিশুর পরিবারের সদস্যরা শিশুটিকে বাড়ি থেকে আধা কিলোমিটার দূরে জমির কাটা ধানের আঁটি আনতে যায়। এ সময় ওই শিশুটি বাড়ি সংলগ্ন মসজিদের সামনে খেলাধুলা করতে থাকে।

দুপুর আড়াইটার দিকে মাহফুজুর মসজিদের সামনে এসে ওই শিশুকে চকলেট দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে তার বাড়িতে নিয়ে গিয়ে শিশুকে ধর্ষণ করে এবং শিশুকে খেলনা গাড়ীসহ তার বাড়িতে রেখে যায়। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ওই শিশুর বাবা-মা বাড়িতে এসে মেয়েকে কান্নাকাটি করতে দেখতে পায়। ওই শিশুকে জিজ্ঞাসা করলে সে ব্যাথা পেয়েছে বলে জানায়। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে মাহফুজুরসহ তার পরিবারের লোকজন ওই শিশুর পরিবারের কাছে এসে বিষয়টি মিমাংসা করার জন্য বলে। এ ঘটনায় ওই শিশুর মা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে মাহিগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ভুক্তভোগীর বাবা জানান, মাহফুজুর রহমান তার ভাইয়ের মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করাকালীন সময় ৬ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ করেছে। এ ঘটনায় সে ৩ মাস জেলও খেটেছে। আমার স্ত্রী মামলা করায় মাহফুজুরের পরিবারের সদস্যরা আমার দুই ছেলে, স্ত্রীসহ আমাকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে। সেই সাথে ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে আমাদের উচ্ছেদ করবে বলে হুমকি দিচ্ছে।   
মাহিগঞ্জ থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ওই শিশুকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার ধর্ষণ সংক্রান্ত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হবে। মামলা হওয়ার পর থেকে মাহফুজুর রহমান পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারে আমাদের অভিযান চলছে।

বিডি প্রতিদিন/এএ

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর